অবশেষে উত্তরপ্রদেশের অমেথির কারখানাতে রাশিয়া ছাড়পত্র দিল, রাইফেল তৈরির জন্য – যোগী রাজ্যে প্রতীক্ষার অবসান

যোগী রাজ্যে প্রতীক্ষার অবসান হল। অবশেষে উত্তরপ্রদেশের অমেথির কারখানাতে রাশিয়া ছাড়পত্র দিল, রাইফেল তৈরির জন্য। এবারে ভারতের বুকে তৈরি হবে রাশিয়ার প্রযুক্তিতে একে ২০৩ অ্যাসল্ট রাইফেল। এই প্রসঙ্গে প্রতিরক্ষা মন্ত্রক জানিয়েছে, ‘পাঁচ হাজার কোটি টাকার চুক্তি পাকা হয়ে গিয়েছে। অস্ত্র তৈরি করার লাইসেন্স মিলেছে।’ অতএব, ভারতীয় বাহিনীর জন্য দ্রুতগতিতে তৈরি হবে অ্যাসল্ট রাইফেল তৈরির কাজ।

জানা গিয়েছে, প্রথমে রাশিয়া থেকে ৭০ হাজার অ্যাসল্ট রাইফেল আমদানি করা হবে। এরপর ভারতে তৈরি হবে প্রায় ছয় লাখের বেশি রাইফেল। উত্তরপ্রদেশের অমেথির কারখানায় রুশ কোম্পানির সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে দেশেই তৈরি হবে অ্যাসল্ট রাইফেল। প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালে প্রতিরক্ষামন্ত্রী নির্মলা সীতারমন রাশিয়া সফরের সময় অ্যাসল্ট রাইফেলের চুক্তিটি সম্পন্ন করে। এই চুক্তি অনুযায়ী ভারত সর্বাধুনিক রাইফেল মডেল বানানোর অনুমতি পায়। এরপর রাশিয়ার রুশ আধিকারিকদের সঙ্গে ভারতের ফ্যাক্টরি বোর্ডের আধিকারিকরা যাবতীয় বৈঠক করে এই গোটা বিষয়টি বাস্তবায়িত করে।

আরো পড়ুন : ইটের বদলে পাটকেল মোদীর, ব্রিটিশ নাগরিকরা ভারতে এলে বাধ্যতামূলক ১০ দিনের কোয়ারেন্টাইন
বর্তমানে একে রাইফেল সিরিজের মধ্যে সবথেকে শক্তিশালী রাইফেল এই মডেলটি। অ্যাসল্ট রাইফেল বর্তমানে ব্যবহার করে রুশ স্পেশাল ফোর্স। এই রাইফেল অন্যান্য রাইফেলের চেয়ে অনেক আধুনিক। পাশাপাশি এই রাইফেলের সঙ্গে যুক্ত করা হয়েছে এরগোনোমিক পিস্তল ট্রিগার। অন্যদিকে, এই রাইফেলের সঙ্গে যুক্ত রয়েছে দুটি স্ট্যান্ড। যার মাধ্যমে রাইফেলের সঙ্গে যুক্ত করা যাবে টেলিস্কোপ থেকে অন্যান্য সরঞ্জাম। প্রতিরক্ষামন্ত্রক সূত্রে খবর, এই রাইফেলে রয়েছে অত্যাধুনিক নাইট ভিশন ক্ষমতা। এই রাইফেলের ওজন প্রায় চার কিলোগ্রাম ২০০ গ্রাম। দৈর্ঘ্য প্রায় ৯০০ মিলিমিটার। জানা গেছে, এই রাইফেল থেকে ৬০০ রাউন্ড গুলি চালানো সম্ভব মাত্র এক মিনিটে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.