কর্মসংস্থান নিয়ে যতোই মোদী সরকারকে বিরোধীরা আক্রমণ করুক না কেন আদতে তা ভিত্তিহীন। তথ্য এবং প্রমাণ দিয়ে তা বুঝিয়ে দিল কেন্দ্র। কেবলমাত্র নরেন্দ্র মোদীর একটি প্রকল্পের সৌজন্যেই দেশে ৬১.৪৯ লক্ষ কর্মসংস্থান হয়েছে। এমনই দাবি করেছে কেন্দ্রের আবাসন মন্ত্রক।

লোকসভা নির্বাচনের আগে ক্রমশ জোরাল হচ্ছে রাজনৈতিক দলগুলির পরস্পরের প্রতি আক্রমণ। মোদীকে হারাতে একজোট হয়েছে সমগ্র বিরোধী শিবির। রাফায়েল সহ নানাবিধ বিষয় নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে নিশানা করেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। বুধবার কেন্দ্রের পক্ষ থেকে সুপ্রিম কোর্টে জানানো হয় যে রাফায়েল নথি খোয়া গিয়েছে। এরপর থেকে রাহুলের আক্রমণের তীব্রতা আরও বৃদ্ধি পেয়েছে। রাফায়েল নথির মতো দেশ থেকে কর্মসংস্থানও খোয়া গিয়েছে বলে কটাক্ষ করেছেন রাহুল।

এই অবস্থায় বুধবারেই কর্মসংস্থান নিয়ে জবাব দিল কেন্দ্র। প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনাতেই দেশের গ্রামীণ এলাকায় ৬১৩৪৯ লক্ষ কর্মসংস্থান হয়েছে এবং এই প্রকল্পের কারণে দেশের অর্থনীতির ভীত মজবুত হয়েছে। কর্মসংস্থান নিয়ে বিতর্কের জবাব দিতে গিয়ে তথ্য সহ এই দাবি করেছেন কেন্দ্রীয় আবাসন মন্ত্রী হরদীপ সিং পুরি।

কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর দেওয়া তথ্য অনুসারে, ২০১৫ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত এই চার বছরে প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার অধীনে ৭৩ লক্ষ বাড়ি নির্মাণ হয়েছে। যার ফলে সরাসরি ১৮.৯২ লক্ষ কর্মসংস্থান হয়েছে। একই সঙ্গে অপ্রত্যক্ষভাবে ৪২.৫৭ লক্ষ কর্মসংস্থান হয়েছে। নির্বাচনী প্রতিশ্রুতিতে যেমন বলা হয়েছিল তেমনই হয়েছে বলে দাবি করেছেন মোদীর মন্ত্রী।

এই যোজনার অধীনে আরও ৪০ লক্ষ বাড়ি তৈরি হবে এবং আর ফলে কর্মসংস্থান আরও বাড়বে বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হরদীপ সিং পুরি। সেই সঙ্গে তিনি আরও দাবি করেছেন যে সিমেন্ট, লোহা এবং অন্যান্য নির্মাণ সামগ্রীর বিক্রি বেড়েছে। যা সার্বিকভাবে অর্থনীতির উন্নতিতে সহায়ক হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.