গত দু’দিন ধরে প্রচুর ট্যাংক এগিয়ে গিয়েছে পাকিস্তান সীমান্তে। মূলত রাজস্থান ও পঞ্জাবের সীমান্তে ওই ট্যাংকগুলি মোতায়েন করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। সঙ্গে প্রচুর পরিমাণ সেনাও মোতায়েন করা হয়েছে ওই অঞ্চলে।

পঞ্জাব ও রাজস্থানে ভারত-পাক সীমান্তে সেনা ও ট্যাঙ্ক সমাবেশ করার কাজ শুরু হয়েছে। এমনটাই খবর সংবাদমাধ্যমে।

গত কয়েক দিনধরেই পঞ্জাব ও রাজস্থান সীমান্ত ঘেঁসা গ্রামগুলি থেকে তার নাগরিকদের সরিয়ে নিচ্ছে পাক সরকার। জানা গিয়েছে, পাশাপাশি অমৃতসর ও জম্মুর সাম্বায় আন্তর্জাতিক সীমানা ঘেঁষে সেনা সমাবেশ করছে পাকিস্তান। আর তার জেরেই এই ব্যবস্থা।

গত ১৪ কাশ্মীরের পুলওয়ামায় সিআরপিফের কনভয়ে জঙ্গি হামলার পর থেকেই দুদেশের মধ্যে সম্পর্ক উত্তেজনাপূর্ণ হয়ে রয়েছে। ২৬ ফেব্রুয়ারি বালাকোটে জঙ্গি শিবিরে হামলা চালায় বায়ুসেনা। এরপর থেকে প্রতিনিয়ত সীমান্তে সংঘর্ষ বিরতি লঙ্ঘন করে গুলি চালাচ্ছে পাক সেনা।

পুলওয়ামা হামলা ও বালাকোটে বায়ুলেনার পাল্টা আঘাত নিয়ে এখনও চাপানউতোর চলছে। তবে এতকিছুর মধ্যেও নিয়মিত অস্ত্রবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করে গোলাগুলি চালাচ্ছে পাক সেনা। এসব দেখেই জম্মু ও কাশ্মীরে নিয়ন্ত্রণরেখায় সতর্ক রাখা হয়েছে সেনাকে। তখন থেকেই নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর সেনা ও অস্ত্র সমাবেশ করে চলেছে ভারত।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.