প্রথমবার বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীতে স্থান পেলেন মহিলারা

ভারতের ইতিহাসে প্রথমবার বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর অন্তর্ভুক্ত হলেন মহিলারা। ন্যাশনাল ডিসাস্টার রেসপন্স ফোর্সের (NDRF) সদস্য হিসেবে এতদিন পর্যন্ত কাজ করার সুযোগ পেতেন শুধু পুরুষরাই।

গত কয়েকমাস ধরে এনডিআরএফে অন্তর্ভুক্ত হয়েছেন ১০০ জন মহিলা। বিপর্যয় মোকাবিলার ক্ষেত্রে সদস্যসংখ্যার বিচারে বিশ্বের সবথেকে বড় ফোর্স এডিআরএফ। সেখানে এতদিন স্থান ছিল না মহিলাদের। কিন্তু এবার পুরুষদের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে সব বিভাগেই দেখা যাবে তাদের।

সাব অফিসার, কনস্টেবল সহ সব পদেই মহিলারা নিযুক্ত হয়েছেন। তাই এবার থেকে পুরুষ সহকর্মীদের সঙ্গে মহিলারাও বিপর্যয়ের মাঝে আর্ত মানুষের সাহায্যের জন্য ঝাঁপিয়ে পড়তে পারবেন।

উত্তরপ্রদেশের গড় মুক্তেশ্বর শহরের গঙ্গা নদীর পাড়ে উদ্ধাকার্যের জন্য প্রাথমিকভাবে নিযুক্ত করা হয়েছে এনডিআরএফের মহিলা ব্রিগেডকে। নদীবক্ষে কখনও কোনও দুর্ঘটনা ঘটলে উদ্ধারকাজে ঝাঁপিয়ে পড়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে তাদেরকে। বিশেষ নৌকা নিয়ে নদীবক্ষে টহলের কাজও শুরু করে দিয়েছেন তারা। যে কাজ এতদিন করতেন তাদের পুরুষ সহকর্মীরা।

এনডিআরএফের ডিরেক্টর জেনারেল এসএন প্রধান জানিয়েছেন, বেশ কিছুমাস ধরে প্রশিক্ষণের পর ধাপে ধাপে ১০০জন মহিলাকে কর্মী হিসেবে এনডিআরএফে নিযুক্ত করা হয়েছে। দ্রুত সেই সংখ্যাটা দ্বিগুণ বাড়িয়ে ফেলা হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

নিয়ম বলছে, এনডিআরএফের প্রত্যেক ব্যাটেলিয়নে ১০৮ জন করে মহিলা কর্মী নিযুক্ত হতে পারেন। প্রত্যেক ব্যাটেলিয়নে হাজারের বেশি কর্মী রয়েছে এনডিআরএফের। আর এই মুহূর্তে দেশে কাজ করছে এনডিআরএফের ১২টি ব্যাটেলিয়ন।

এসএন প্রধান বলেছেন, ‘শুধুমাত্র মহিলাদের স্কোয়াড এবং পুরুষদের সঙ্গে মহিলা কর্মীদের একত্রে গড়ে তোলা স্কোয়াড, দুরকম তৈরিরই পরিকল্পনা রয়েছে আমাদের। বেশ কিছু উদ্ধারকাজে মহিলা ও শিশুদের উদ্ধারের সময় মহিলা উদ্ধারকারীদের যে খুব প্রয়োজন সেই উপলব্ধি থেকে দ্রুত মহিলাদের প্রশিক্ষণ দিয়ে এনডিআরএফে অন্তর্ভুক্ত করার ভাবনা নেওয়া হয়।’

মহিলাদের স্কোয়াড নিয়ে যে তাদের কাছে বেশ ইতিবাচক প্রতিক্রিয়া এসেছে, সেটাও জানিয়েছেন এনডিআরএফের ডিরেক্টর জেনারেল।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.