গত কয়েক বছর ধরে বিজেপির সাংসদ সুব্রহ্মণ্যম স্বামী অভিযোগ করে আসছেন, কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী ব্রিটেনের নাগরিক। দেশে ভোটপর্ব চলাকালীন রাহুল গান্ধীকে চিঠি দিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক বলল, আপনার নাগরিকত্ব নিয়ে নির্দিষ্ট করে জানান।

এবার ভোটে রাহুল উত্তরপ্রদেশের অমেঠী এবং কেরলের ওয়ানাড় থেকে প্রার্থী হয়েছেন। তাঁকে চিঠি দিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের নাগরিকত্ব বিভাগের ডিরেক্টর বি সি যোশী। চিঠির বক্তব্য, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রককে সুব্রহ্মণ্যম স্বামী বলেছেন, ২০০৩ সালে ব্রিটেনে ব্যাকঅপস লিমিটেড নামে একটি কোম্পানির রেজিস্ট্রেশন হয়। তার ঠিকানা ছিল ৫১, সাউথগেট স্ট্রিট, উইনচেস্টার, হ্যাম্পশায়ার এস ও ২৩ ৯ ই এইচ। রাহুল নাকি সেই কোম্পানির ডিরেক্টর এবং সেক্রেটারি।

চিঠিতে আরও বলা হয়েছে, সুব্রহ্মণ্যম স্বামী আমাদের জানিয়েছেন, ওই কোম্পানি ২০০৫ সালের ১০ অক্টোবর এবং ২০০৬ সালের ৩১ অক্টোবর অ্যানুয়াল রিটার্ন দাখিল করে। তাতে আপনি জানিয়েছেন আপনার জন্ম হয়েছিল ১৯৭০ সালের ১৯ জুন। আপনি সেখানে নিজেকে ব্রিটিশ নাগরিক বলে দাবি করেছিলেন।

২০০৯ সালের ১৭ ফেব্রুয়ারি ওই কোম্পানি সরকারের কাছে আর একটি আবেদন করে। তাতেও আপনাকে ব্রিটিশ নাগরিক বলে উল্লেখ করা হয়েছিল।

চিঠির শেষে বলা হয়েছে, আগামী ১৫ দিনের মধ্যে আপনার নাগরিকত্ব নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের কাছে বিস্তারিত জানান।

সুব্রহ্মণ্যম স্বামী বরাবরই নেহরু-গান্ধী পরিবারের কট্টর সমালোচক বলে পরিচিত। তাঁর অভিযোগের বিরোধিতা করে কংগ্রেসের মুখপাত্র রণদীপ সিং সুরজেওয়ালা বলেন, রাহুল জন্ম থেকেই ভারতীয় নাগরিক। তাঁর কাছে ভারতীয় পাসপোর্ট আছে। কংগ্রেস কয়েকটি নথি পেশ করে দেখায়, সেখানে রাহুল নিজেকে ভারতের নাগরিক বলে দাবি করেছেন।

সংশ্লিষ্ট কোম্পানির নথি ঘেঁটে কয়েকজন সাংবাদিক দাবি করেছেন, স্বামীর দাবি সত্য। কোম্পানির রিটার্নে রাহুল সত্যিই নিজেকে ব্রিটিশ নাগরিক বলে দাবি করেছেন। কংগ্রেস বলেছে, সম্ভবত ব্রিটিশ সরকার ভুল করেছে। তারা চিঠি লিখে অনুরোধ করবে যাতে ভুলটা সংশোধন করে নেওয়া হয়।

কংগ্রেস নেতা সঞ্জয় ঝা বলেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও বিজেপির সভাপতি অমিত শাহ রাহুলকে ভয় পাচ্ছেন। সেজন্য ভোটের মধ্যেই তাঁকে ওই ধরনের চিঠি পাঠানো হয়েছে।

বিজেপির সিদ্ধার্থনাথ সিং বলেন, কংগ্রেস রাহুলের বিরুদ্ধে অভিযোগের জবাব এড়িয়ে যাচ্ছে। অমেঠীর সাংসদ হিসাবে রাহুল নিজেকে ভারতের নাগরিক বলে দাবি করেছেন। অন্যদিকে অপর একটি নথিতে তিনি নিজেকে বলছেন ব্রিটিশ নাগরিক।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.