শোপিয়ান, বারামুলা, বান্দিপোরা ও সোপরে আলাদা আলাদা এনকাউন্টার হয়। সব মিলিয়ে ৭ জন মারা পড়ে। এর মধ্যে শোপিয়ানেই মারা গিয়েছে ২ জঙ্গি। শুক্রবার রাতেও সেখানে এনকাউন্টার চলছে।

বিগত ২৪ ঘণ্টায় জম্মু-কাশ্মীরে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে বিক্ষিপ্ত সংঘর্ষে কমপক্ষে ৭ জঙ্গি নিহত হয়েছে। শোপিয়ান, বারামুলা, বান্দিপোরা ও সোপরে আলাদা আলাদা এনকাউন্টার হয়। সব মিলিয়ে ৭ জন মারা পড়ে। এর মধ্যে শোপিয়ানেই মারা গিয়েছে ২ জঙ্গি। শুক্রবার রাতেও সেখানে এনকাউন্টার চলছে। বান্দিপোরায় নিরাপত্তা বাহিনী নিকেশ করেছে আরও ২ জঙ্গিকে। বারামুলার বান্দি পাইন গ্রামে নিহত আরও ২ জঙ্গি। বারামুলারই সোপরে সংঘর্ষে নিহত আরও ১ জঙ্গি। 

সেনা সূত্রে খবর, শোপিয়ানের ইমাম সাহেব অঞ্চলে এনকাউন্টারে প্রাণ হারিয়েছে দুই জঙ্গি। বিশেষ সূত্রে জঙ্গি উপস্থিতির খবর পেয়ে বাহিনী অভিযানে গেলে, গুলি ছোড়ে জঙ্গিরা। পালটা আক্রমণে মারা পড়ে ২ জঙ্গি। নিহতদের পরিচয় এখনও জানা যায়নি। কাশ্মীরের বান্দিপোরার হাজিন অঞ্চলে ২ জঙ্গিকে নিকেশ করা হয়। এ ক্ষেত্রেও সূত্র মারফত্‍‌ খবর পেয়েছিল নিরাপত্তা বাহিনী। 

পুলিশের ট্যুইট থেকে জানা গিয়েছে, সেখানকার মির মহল্লার একটি বাড়িতে ঢুকে সেই পরিবারের দুই সদস্যকে পণবন্দি করে জঙ্গিরা। এর মধ্যে একজনকে নিরাপদে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে। একটি শিশু এখনও পণবন্দি অবস্থায় রয়েছে। নিরাপত্তা বাহিনীর উপস্থিতি টের পেয়ে জঙ্গিরা গুলি চালাতে শুরু করে। পালটা গুলিতে খতম হয় ২ জঙ্গি। সংঘর্ষ এখনও চলছে। 

বারামুলায় বান্দি পাইন গ্রামে এনকাউন্টারে নিহত দুই জঙ্গির একজনের পরিচয় জানা গিয়েছে। নাম আমির, বাড়ি সোপরে। সংঘর্ষে আহত হয়েছেন এক সেনা অফিসার-সহ তিন জঙ্গি। তাঁদের হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে। সংঘর্ষ চলাকালীন এখানে স্থানীয় তিন যুবকও জখম হন।

সূত্রের খবর, উত্তর কাশ্মীরের বারামুলার সোপরে এখনও এনকউন্টার চলছে। এক জঙ্গি নিহত হয়েছে। বাকিদের খোঁজে চলছে তল্লাশি অভিযান। 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.