বিশ্বের বৃহত্তম গনতন্ত্রের দেশ ভারত। আর ভোট হচ্ছে গনতন্ত্রের জনপ্রিয় উৎসব। ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনের দিনক্ষন ঘোষনার মাধ্যমে সেই উৎসবের ঢাকে কাঠি পড়েছে। ইতিমধ্যে সব দলই প্রচার,সমাবেশে ভোটারদের কাছে পৌঁছানোর প্রয়াস শুরু করেছে।

এই নির্বাচনী উৎসবের মরশুমে কয়েকটি বিশেষ সিনেমা রিলিজ হতে চলেছে। যা ভোটারদেরকে রাজনীতিবিদদের জীবন সম্পর্কে জানতে এবং রাজনীতির সাথে সম্পর্কিত বিভিন্ন পরিস্থিতিতকে বুঝতে সাহায্য করবে। এই ধরনের একটি সিনেমা ‘রাম জন্মভূমি’ সেন্সর বোর্ডের অনুমোদনে আগামী ২৯ শে মার্চ মুক্তি পেতে চলেছে।

সিনেমাটির পরিচালক সুনোজ মিশ্র এবং উত্তরপ্রদেশের শিয়া ওয়াকফ বোর্ডের সভাপতি ওয়াসিম রিজভী তার কাহিনীকার ও প্রযোজক। ওয়াসিম রিজভী নিজে সিনেক্রাফ্ট প্রোডাকসন এর ব্যানারে তৈরি করা ঐ ছবিতে অভিনয়ও করেছেন।

১৯৯২ সালে অযোধ্যায় রাম জন্মভূমি আন্দোলনের সময় সংঘটিত ঘটনাগুলির ভিত্তিতে চলচ্চিত্রটি চিত্রিত করা হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। তিন তালাক ও নিকাহ্ হালালের মতো সামাজিক অপরাধ গুলির পাশাপাশি আমাদের সমাজে মহিলারা কি ভাবে পণ্য হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে সেই বিষয়টিও সিনেমাটির মধ্যে প্রকাশ পেয়েছে। শুটিং ঘটনাগুলির আসল জায়গায় করা হয়েছে।

যারা নিজেদের রাজনৈতিক সুবিধার জন্য পরিস্থিতিটিকে কাজে লাগিয়েছিলেন তাদের সবাইকে সিনেমাটি একটি কড়া বর্তা দেবে বলে মনে করেন চলচ্চিত্রটির কহিনীকার ওয়াসিম রিজভী। সিনেমাটির মুক্তির পথ সহজ ছিল না। এটা রিলিজ করার জন্য অনেক কষ্ট সহ্য করেছেন প্রযোজক রিজভী।

অনেক ধর্মীয় গোষ্ঠী এই চলচ্চিত্রের মুক্তির ব্যাপারে আপত্তি জানিয়েছে। সিনেমাটির বিরুদ্ধে এফআইআর ও করা হয়েছে। হাই কোর্টও সেন্সর সার্টিফিকেট দিতে স্থগিতাদেশ জারী করেছে। ১৯৯৩ সালের মুম্বাই বোমা বিস্ফোরণের মামলায় প্রধান সন্দেহভাজন টাইগার মেমনের ভাই আব্দুল মেমনও তাকে হুমকি দিয়েছে। এত কিছুর পরেও রিজভী হাল ছাড়েননি।

অবশেষে ছবিটি সেন্সর বোর্ড কর্তৃক অনুমোদন পেয়ে ২৯ শে মার্চ পেক্ষাগৃহ গুলিতে মুক্তির অপেক্ষায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.