কোভিডে মৃত্যু বাড়ছে কেন্দ্রীয় বাহিনীতে, ভাইরাস আক্রান্ত প্রায় ৮৪ হাজার

কোভিডের ভয়ানক থাবা পড়েছে কেন্দ্রীয় বাহিনীতে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের পরিসংখ্যাণ বলছে, কোভিডের দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হওয়ার পরে কেন্দ্রীয় বাহিনীতে সংক্রমিতের সংখ্যা প্রায় ৩৫ শতাংশ বেড়েছে। পাল্লা দিয়ে বেড়েছে মৃত্যুও। এ যাবৎ কেন্দ্রীয় সশস্ত্র পুলিশ বাহিনীতে কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৮৪ হাজার। ভাইরাস সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে অন্তত ৩৩১ জনের।

মার্চের তৃতীয় সপ্তাহ থেকে দেশের আধা সামরিক বাহিনীতে কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়েছে। সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ দেখা গেছে সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্স বা সিআরপিএফ-এ। গত বছর এপ্রিল নাগাদ সিআরপিএফ বাহিনীতে কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা ছিল হাতে গোনা। কিন্তু কোভিডের দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হওয়ার পরে সংক্রমণ বাড়তে শুরু করে। চলতি বছর জুলাই মাস অবধি কোভিড পরিসংখ্যাণ বলছে, সিআরপিএফ বাহিনীতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা পৌঁছেছে প্রায় ২৪ হাজার ৮৪০ জনে। সংক্রমণে প্রাণ হারিয়েছেন ১২৫ জন।


সীমান্ত রক্ষী বাহিনীতেও করোনার মারাত্মক সংক্রমণ চিন্তা বাড়িয়েছে। বিএসএফ-এ এখনও অবধি ২২ হাজারের বেশি জওয়ান কোভিড পজিটিভ, মৃত্যু হয়েছে প্রায় ৯০ জনের। অন্যদিকে, সেন্ট্রাল ইন্ডাস্ট্রিয়াল সিকিউরিটি ফোর্স (সিআইএসএফ)-এ কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা ১৯ হাজারের বেশি।


কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের পরিসংখ্যাণ বলছে, গত বছর থেকে এ বছর মার্চ অবধি কেন্দ্রীয় সশস্ত্র পুলিশ বাহিনীর ৫০ হাজারের বেশি জওয়ান কোভিডে আক্রান্ত হয়েছেন। কোভিড সংক্রমণের শিকার আইটিবি-র জওয়ানরাও। সূত্র বলছে, বিভিন্ন কোভিড হাসপাতালে কর্তব্যরত ছিলেন জওয়ানরা। সেখান থেকে সংক্রমণ ছড়ায় তাঁদের শরীরেও। জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা দল (এনডিআরএফ) ও ন্যাশনাল সিকিউরিটি গার্ড (এনএসজি)-এও কোভিড সংক্রমণ চলতি বছরে অনেকটাই বেড়েছে। মার্চের পর থেকে আইটিবিপি-তে হাজারের বেশি জওয়ান কোভিড আক্রান্ত হয়েছেন, এনডিআরএফ-এ আক্রান্ত সংখ্যা ২০০ ছুঁতে চলেছে। এনএসজি-তেও সংক্রমিত দেড়শোর বেশি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.