পাকিস্তান: লাহোরে মহারাজা রঞ্জিত সিংয়ের মূর্তি ভাঙলো ইসলামিক মৌলবাদী

এতদিনে হিন্দু মন্দির ভাঙার ঘটনা ঘটতে। এবার শিখ মহারাজা রঞ্জিত সিংয়ের মূর্তিতে ভাঙচুর চালালো এক মুসলিম মৌলবাদী। গত ১১ই ডিসেম্বর লাহোরে অবস্থিত ওই মূর্তিতে ভাঙচুর চালায় জাহির ঈশাক নামে এক ইসলামিক মৌলবাদী। তাঁর দাবি, শিখ মহারাজা রঞ্জিত সিং অনেক মুসলিমকে হত্যা করেছেন এবং লাহোরের বাদশাহী মসজিদকে ঘোড়া রাখার আস্তাবলে পরিণত করেছিলেন তিনি। সেই রাগ থেকেই মূর্তিতে ভাঙচুর চালিয়েছে সে।

লাহোরের রানী জিন্দন কৌর দুর্গের বাইরে ব্রোঞ্জের তৈরি মহারাজা রঞ্জিত সিংয়ের মূর্তিটি স্থাপন করা হয়েছিল। গত বছরই ব্রিটেনের একটি শিখ সংগঠনের আর্থিক সহায়তায় শিখ সাম্রাজ্যের ১৮০ বর্ষপূর্তি উপলক্ষে মূর্তিটি বসানো হয়েছিল। মূর্তিটি বসানোর পরই একাধিক ইসলামিক কট্টরপন্থী সংগঠন এর বিরোধিতা করেছিল। তাদের দাবি ছিল যে, তাঁর শাসনকালে তিনি বহু মুসলিমকে হত্যা করেছিলেন। তাই ইসলামিক রাষ্ট্রে তাঁর মূর্তি বসানো যাবে না।

গত ১১ই ডিসেম্বর, জাহির ঈশাক নামে এক মৌলবাদী মূর্তিতে ভাঙচুর চালায়। সে মূর্তির হাত ভেঙে দেয়। সেসময় সেখানে উপস্থিত এক নিরাপত্তারক্ষী তাকে ধরে ফেলেন। জেরায় সে জানিয়েছে, মহারাজা রঞ্জিত সিং মুসলিমদের ওপর অত্যাচার করেছিলেন। তাই তাঁর মূর্তি পাকিস্তানে রাখা যাবে না। মূর্তি ভাঙার ঘটনায় বিশ্বের শিখ সমাজের মধ্যে ক্ষোভ ছড়িয়েছে। তবে এর বিরুদ্ধে খালিস্তানপন্থীদের কোনো বক্তব্য এখনও পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.