জাল ড্রাইভিং লাইসেন্স চক্রের পর্দাফাঁস, বাংলার সীমান্তে অভিযানে BSF

বাংলার সীমান্তে সক্রিয় ছিল ভুয়ো ড্রাইভিং লাইসেন্সের চক্র। অভিযোগ এমনটাই। সেই চক্রের পর্দাফাঁস করল বিএসএফ। কমপক্ষে ১৭০টি জাল ড্রাইভিং লাইসেন্স বাজেয়াপ্ত করেছে বিএসএফ। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ট্রাক ড্রাইভারদের কাছ থেকে এই জাল ড্রাইভিং লাইসেন্স পাওয়া গিয়েছে। ডিআইজি বিএসএফ এসএস গুলেরিয়া জানিয়েছেন, ১৬ই জানুয়ারি প্রথমে ৫২টি জাল ড্রাইভিং লাইসেন্স পাওয়া গিয়েছিল। এরপর পেট্রাপোল সীমান্তে আরও ৩০টি জাল ড্রাইভিং লাইসেন্স পাওয়া যায়। এরপর ঘোজাডাঙা থেকে ৭৬টি ও মালদার মহদীপুর থেকে ১টি জাল লাইসেন্স পাওয়া যায়। বৃহস্পতিবার ঘোজাডাঙা থেকে আরও ৫টি জাল লাইসেন্স পাওয়া গিয়েছে। ট্রেন্ডিং স্টোরিজ

এদিকে গোপন সূত্রে বিএসএফ খবর পায় কিছু গাড়ি চালক সোনা, রুপো, ফেনসিডিল পাচারের সঙ্গে যুক্ত হয়ে পড়েছে। মাদকের পাচারও চলছে। এরপরই অভিযানে নামে বিএসএফ। তবে মালদা ছাড়া অন্য কোথাও পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের হয়নি। পেট্রাপোল থানার এক আধিকারিক বলেন, বিএসএফ থেকে শুধু কিছু নম্বর দিয়ে বলা হয়েছে এগুলি ফেক লাইসেন্স। লিখিত কিছু জানায়নি। 

এদিকে বিএসএফের কাজের পরিধি বৃদ্ধি নিয়ে কেন্দ্রীয় নির্দেশকে ঘিরে আগেই আপত্তি তুলেছিল রাজ্য সরকার। পুলিশের কাজেও বিএসএফ হস্তক্ষেপ করতে পারে বলে সন্দেহ প্রকাশ করেছিলেন বাংলার শাসকদল। তবে এবার চালকদের কাছ থেকে ভুয়ো লাইসেন্স বাজেয়াপ্তের ঘটনায় পুলিশের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন উঠছে। 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.