ভারতের সঙ্গে হাত মেলানোর বার্তা চিনের, দুই দেশের সম্পর্ক অপরিহার্য, বললেন জয়শংকর

ভারত-চিন সীমান্তে ‘স্বাভাবিক ব্যবস্থাপনা’ চায় বেজিং। সাংহাই কো-অপারেশন অর্গানাইজেশনের বৈঠকের মাঝে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে ভারতীয় বিদেশমন্ত্রী এস জয়শংকরকে এই বার্তাই দিলেন চিনের বিদেশমন্ত্রী ওয়াং ইউ। ওয়াংয়ের বক্তব্য, জরুরী প্রতিক্রিয়ার বদলে দুই দেশেরই উচিত সীমান্তে স্বাভাবিক ব্যবস্থাপনার উপর জোর দেওয়া।

এদিকে ভারত-চিন সম্পর্ককে অপরিহার্য বলে আখ্যা দেন এস জয়শংকর। পাশাপাশি তিনি জানান, দিল্লি দুই সভ্যতার সংঘাতে বিশ্বাস করে না। এদিরে ওয়াং জানান, উভয় দেশকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে, সীমান্ত এলাকায় শান্তি বজায় রাখতে হবে এবং সংঘর্ষের ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধ করতে হবে।ট্রেন্ডিং স্টোরিজ

চিনা বিদেশমন্ত্রী বলেন, ‘এটা আশা করা যায় যে, ভারতীয় পক্ষ চিনের সঙ্গে হাত মেলাতে মাঝপথ পর্যন্ত এগিয়ে আসবে, সীমান্ত পরিস্থিতির অব্যাহত স্থিতিশীলতা প্রচার করবে এবং ধীরে ধীরে জরুরী প্রতিক্রিয়া থেকে স্বাভাবিক ব্যবস্থাপনায় চালু করবে।’

এদিকে আজকের বৈঠকের পর ভারতের বিদেশ মন্ত্রকের তরফে একটি বিবৃতিতে বলা হয়, ‘বিদেশমন্ত্রী জানিয়েছেন যে ভারত কোনও সংঘর্ষের তত্ত্বে বিশ্বাস করে না। তিনি জানিয়েছেন, পারস্পরিক শ্রদ্ধার উপর ভিত্তি করে ভারত এবং চিনকে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। সেই পথে এগিয়ে যাওয়ার জন্য তৃতীয় কোনও দেশের দৃষ্টিভঙ্গি থেকে আমাদের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে বিবেচনা করার প্রবণতা থেকে চিনকে বিরত থাকতে হবে। ভারত-চিনের সম্পর্ক যে দৃষ্টান্ত তৈরি করবে, তার উপর এশিয়ার সংহতি নির্ভর করবে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.