স্কুল খোলা নিয়ে বড়সড় পদক্ষেপ রাজ্যের, আরও কিছুটা স্পষ্ট হল ছবিটা

সবকিছু ঠিক থাকলে পুজোর পর স্কুল খুলে যাবে বলে আগেই জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। সেইমতো প্রস্তুতি নিতে শুরু করে দিয়েছে রাজ্য সরকার। সেই প্রস্তুতির অঙ্গ হিসেবে স্কুল ভবন সারাইয়ের জন্য ১০৯ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হল। যে অর্থ দিয়ে রাজ্যের ৬,৪৬৮ টি স্কুলে মেরামতির কাজ চলবে। 

গত অগস্টে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছিলেন, করোনাভাইরাসের তৃতীয় ঢেউ ভয়ংকর না হলে পুজোর ছুটির পর রাজ্যে স্কুল খুলে যাবে। বলেছিলেন, ‘‌রাজ্যে আপাতত করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে। সংক্রমণ এক শতাংশে নেমে এসেছে। তবে আজ ঠিক থাকলেও আগামিকাল কী হবে, তা নিয়ে এভাবে বলা সম্ভব নয়। সব ঠিকঠাক থাকলে ভাইফোঁটার পরই রাজ্যে স্কুল খোলা হবে।’‌ সঙ্গে যোগ করেছিলেন, ‘‌দুর্গাপুজোর পর স্যানিটাইজেশন করে স্কুল খুলবে। এখন করোনা পরিস্থিতি অনেকটা নিয়ন্ত্রণে। তৃতীয় ঢেউ না এলে স্কুল খোলা হবে।’‌ট্রেন্ডিং স্টোরিজ

মমতার সেই ঘোষণার পর স্কুল খোলার জন্য প্রস্তুতি শুরু করে দেয় রাজ্যের স্কুল শিক্ষা দফতর। দেড় বছরের বেশি বন্ধ থাকায় অনেক স্কুলের ভবনই ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। কোথাও স্কুলের ভবনে ফাটল ধরেছে। কোথাও আবার অগাছা গজিয়েছে। যা পড়ুয়া এবং শিক্ষকদের পক্ষে ঝুঁকিপূর্ণ হতে পারে বলে ধারণা স্কুল শিক্ষা দফতরের। সেজন্য সেইসব ভবন মেরামত করতে মোট কত টাকা লাগবে, তা নির্ধারণ করতে জেলাশাসকদের চিঠি পাঠানো হয়েছিল। ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে বিস্তারিত হিসাব পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছিল রাজ্য। নবান্ন সূত্রে খবর, জেলাভিত্তিক রিপোর্ট হাতে পেয়ে স্কুল ভবন সারাইয়ের জন্য ১০৯ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে।সম্পর্কিত খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.