ট্র্যাডিশন ভেঙে নেতা থেকে সমর্থক, সবার জন্যও আচ্ছাদন বিজেপির

দলের নিচু তলার কর্মীদের কথা মাথায় রেখে ব্রিগেডে সভাস্থলে থাকছে আচ্ছাদন।

সাধারণ রেওয়াজ কিন্তু অন্য। মঞ্চে আচ্ছাদন থাকলেও দর্শক কর্মী সমর্থকদের জন্য তা থাকে না কখনওই। গরমে হোক বা শীতে এভাবেই রাজনৈতিক সমাবেশের আয়োজন করে থাকে প্রায় সব রাজনৈতিক দল। সভা দেখলেই বোঝা যায় কর্মী ও নেতার স্ট্যাটাসের পার্থক্য, ‘বোঝা যায় অনেক উঁচুতে মাচা’। এই ব্রিগেডে মায়াবতীর সভায় এও দেখা গেছে যে, মঞ্চে এসির ব্যবস্থা, এদিকে আর কড়া রোদে পুড়ছে ‘এলেবেলে’ দর্শক। যাঁদের সমর্থনে, ভোটে জিতে নেতা হন নেতা। সেই রেওয়াজটাই বদলে দিতে চলেছে বিজেপি।

শনিবার ব্রিগেড পরিদর্শন করে একথা জানান বিজেপির জাতীয় পরিষদের সদস্য মুকুল রায়। তিনি বলেন, এপ্রিল মাসের দুপুরে প্রখর গরম। সেই গরমে, রোদে দলের নিচু তলার কর্মীদের কষ্ট হবে, সেকথা মাথায় রেখেই মঞ্চের পাশাপাশি দর্শক আসনেও সামিয়ানা লাগাবে রাজ্য বিজেপি।

উল্লেখ্য, আগামী তেসরা এপ্রিল রাজ্যে আসছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ওই দিন দুটি সভা করবেন তিনি। যার একটি ব্রিগেডে। সভা নিয়ে আত্মবিশ্বাসী মুকুল বলেন, বিগ্রেডের মোদির আগামী সভা অতীতের সব রেকর্ডকে ভেঙে দেবে। ভারতবর্ষের কোন দল আজ পর্যন্ত রাজ্যে একই দিনে দুটি বড় সভা করার হিম্মত দেখায়নি। বিজেপিই একমাত্র এই সাহস দেখাতে চলেছে।

নীল বণিক

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.