২৮ দিন ধরে অনশন করার পর বুধবার SSC চাকরিপ্রার্থীদের অনশন মঞ্চে গিয়ে সহমর্মিতা প্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়!  উনি অনশনকারী চাকরিপ্রার্থীদের সামনে বরাই করে বলেন উনি খুব মানবিক। আর তারপরেই সুবোধ মল্লিক স্ক্যয়ারের সামনে ফুটপাতে অনশন কর্মসূচিতে বসা প্রার্থীদের জোর করে তুলে দেওয়ার অভিযোগ উঠল মানবিক মমতা ব্যানার্জির পুলিশের বিরুদ্ধে।

অভিযোগ সন্ধ্যে সাতটা নাগাদ এলাকার কাউন্সিলর ওনার দলবল আর পুলিশকে সঙ্গে করে নিয়ে এসে জোর করে তুলে দেয় অনশনকারীদের। এমনকি সেখান থেকে সাতজনকে গ্রেফতারও করেছে মানবিক মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর পুলিশ।

আন্দোলনে বসা প্রাইমারি প্রার্থী মৌমিতা ঘোষ বলেন, ‘সরকার আমাদের দাবি মানছে না। তাই আপার প্রাইমারি TET উত্তীর্ণ প্রার্থীরা সকাল ১১ টা থেকে সন্ধ্যে সাতটা অবধি সুবোধ মল্লিক স্ক্যয়ারে অনশন কর্মসূচী পালন করতে বসেছিলাম। কিন্তু স্থানীয় তৃণমূল কাউন্সিলর পুলিশের সাথে ওনার দলবল এনে আমাদের উপর চড়াও হন। আমাদের ছত্রভঙ্গ করার চেষ্টা করে।” মৌমিতা বলেন, ‘আজ পরিস্থিতির চাপে পড়ে আমরা উঠে যেতে বাধ্য হলাম। কিন্তু এরপরে এরথেকেও বড় আন্দলোন করবো আমরা।”

আপনাদের জানিয়ে রাখি, গতকাল তৃণমূল কংগ্রেস তাঁদের নির্বাচনী ইস্তেহার প্রকাশ করেছে। সেখানে ঘোষণা করা হয়েছে তৃণমূল ক্ষমতায় এলে অথবা মমতা ব্যানার্জী প্রধানমন্ত্রী হলে, নোটবন্দি নিয়ে তদন্ত করা হবে। কিন্তু সেই ইস্তেহারে কোথাও লেখা নেই, মমতা ব্যানার্জী ক্ষমতায় এলে সারদা, নারদা, ত্রিফলা, টেট দুর্নীতি নিয়ে তদন্ত হবে!

মমতা ব্যানার্জী নিজে থেকেই একশ দিনের কাজকে দ্বিগুণ করে ২০০ দিনের কাজ করতে চলেছেন। রাজ্যে শিক্ষিত বেকারদের চাকরি না দিতে পেরে তাঁদের দিয়ে এখন হয়ত ২০০ দিনের কাজই করানো হবে!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.