রাজ্যের চার পুলিশ কর্তাকে অপসারণের সিদ্ধান্ত সঠিক, বললেন রাহুল সিনহা

রাতেই রাজ্যের চার পুলিশ কর্তাকে নির্বাচন কমিশনের অপসারণের সিদ্ধান্ত সঠিক বলে জানালেন রাহুল সিনহা। তিনি বলেন, এই চার পুলিশকর্তাদের ভূমিকা নিয়ে শুধু বিজেপি অভিযোগ জানায় নি। রাজ্যের সমস্ত বিরোধী দলগুলি অপসারিত চার পুলিশ কর্তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়েছেন বলে দাবি করেন বিজেপির কেন্দ্রীয় সম্পাদক। রাজ্যে নিরপেক্ষ ও শান্তিতে ভোট করার জন্য কমিশনের এই কঠোর পদক্ষেপ অত্যন্ত জরুরী ছিল বলে জানান তিনি। তার সঙ্গে কলকাতা ও বিধাননগরের পুলিশের অপসারিত পুলিশ কমিশনারদের তীব্র আক্রমণ করেন রাহুল সিনহা। তিনি বলেন, বিধান নগরের অপসারিত পুলিশ কমিশনার স্মাগলারদের সাহায়্য করেন। তাই তার মতো দাগি অফিসারদের নির্বাচন পরিচালনা করার কোন অধিকার নেই বলে জানান বিজেপির কেন্দ্রীয় সম্পাদক। শনিবার দলের রাজ্যসদর দফতরে বসে এইকথা বলেন রাহুল সিনহা। তারসঙ্গে তিনি রাজ্যের পুলিশ কর্তাদের নিরপেক্ষ নির্বাচন করার পরামর্শ দেন। না হলে রাজ্যের আরও কয়েকজন পুলিশ কর্তার বিরুদ্ধে কমিশনে যাবে বিজেপি।

প্রসঙ্গত, নির্বাচন কমিশনের অপসারিত এই চার পুলিশকর্তারা হলেন, কলকাতা ও বিধাননগর পুলিশ নগরপাল এবং বীরভূমের পুলিশ সুপার ও ডায়মন্ড হারবার পুলিশ জেলার পুলিশ সুপার। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে এই অপসারণের নির্দেশ কার্যকর করতে আদেশ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। পাশাপাশি জানিয়েছে, অপসারিত পুলিশ কর্তাদেরকে ভোটের কোনও কাজে ব্যবহার করা যাবে না।

কমিশনের নির্দেশ অনুযায়ী, অনুজ শর্মার বদলে কলকাতার নতুন নগরপাল হলেন রাজেশ কুমার। তিনি পলিউশন কন্ট্রোল বোর্ডের এডিজি পদমর্যাদার আধিকারিক ছিলেন। সরানো হল বিধাননগরের পুলিশ কমিশনার জ্ঞানবন্ত সিংকেও। তাঁর বদলে বিধাননগরের নতুন পুলিশ কমিশনার হলেন নটরাজন রমেশ বাবু। তিনি বিধাননগর পুলিশের এডিজি অপারেশন পদে ছিলেন। পাশাপাশি, বীরভূমের পুলিশ সুপার শ্যাম সিংকে বদলে সেই স্থানে আনা হল আভান্যু রবীন্দ্রনাথকে। তিনি এয়ারপোর্ট ডিভিশনের ডিসি পদমর্যাদার আধিকারিক ছিলেন। ডায়মন্ড হারবারের পুলিশ সুপার এস সেলভামুরুগানকে বদলে তার স্থানে আনা হয়েছে কলকাতা সশস্ত্র পুলিশের থার্ড ব্যাটেলিয়নের ডিসি শ্রীহরি পাণ্ডেকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.