আসন্ন লোকসভা নির্বাচনকে ঘিরে সরগরম দেশের রাজনীতি। এবারের নির্বাচনে সারা দেশের মানুষের পাখির চোখ পশ্চিমবঙ্গ। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের রাজ্যে এবারে কতটা খাতা খুলতে পারবেন নরেন্দ্র মোদির সৈনিকেরা? জি.এস.টি হোক বা নোট বাতিল, মোদি বিরোধী হিসেবে সবসময় সবার প্রথমে থেকেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাই তাঁর রাজ্যে এবারে কতটা থাবা বসাবে বিজেপি সেদিকেই তাকিয়ে সারা দেশের মানুষ।

রাজনীতির ময়দানে এবারে জোড়দার লড়াইয়ে নেমেছেন এরাজ্যের শাসক দল। বিজেপিকে এক ইঞ্চিও জমি ছাড়তে নারাজ তাঁরা। ঠিক সে কারণেই এরাজ্যে এবারে তৃণমূলের প্রার্থী তালিকাতেও চমক রেখেছেন দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যাদবপুর কেন্দ্র থেকে এবারে তৃণমূলের প্রার্থী মিমি চক্রবর্তী ও বসিরহাট কেন্দ্রের তৃণমূল প্রার্থী নুসরত জাহান। রাজনীতিতে তারকা প্রার্থীদের প্রবেশ এরাজ্যে এর আগেও হয়েছে। ২০১৪-এর পর যদিও তার প্রবণতা অনেকটাই বেড়ে গিয়েছে বলে মত বিভিন্ন মহলের।
এবিষয়ে বিজেপি নেত্রী প্রিয়াঙ্কা টিব্রেওয়াল জানান, ‘নতুন মুখকে তৃণমূল সুযোগ দিচ্ছে, এটা খুবই ভালো। ব্যক্তিগতভাবে কারও বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ নেই। কিন্তু, একটা প্রশ্ন থেকে যাচ্ছে। লোকসভা নির্বাচন দেশের ক্ষেত্রে একটা গুরুত্বপূর্ণ নির্বাচন। আগেও তৃণমূল তারকাদের প্রার্থী করেছিল এই নির্বাচনে। এবারে বেশ কিছু তারকা প্রার্থীর কেন্দ্র পরিবর্তন করা হয়েছে। যদি তারকাদের ওপর এত বিশ্বাস থাকত তাহলে কেন এবারে তাঁদের কেন্দ্র কেন পরিবর্তন করা হল?’

মোদি সরকারের আমলে দেশের মানুষ দু-দুটি সার্জিক্যাল স্ট্রাইক দেখেছেন। সার্জিক্যাল স্ট্রাইক প্রসঙ্গেও পিছিয়ে থাকেন‌নি বিরোধীরা। বিভিন্ন মহল থেকে এই সার্জিক্যাল স্ট্রাইকের সত্যতা নিয়েও প্রশ্ন তোলা হয়। এমনকি এরাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও সার্জিক্যাল স্ট্রাইক নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। সে বিষয়ে বিজেপি নেত্রী জানান, ‘খুবই নিন্দনীয় কথা। বিরোধীরা এই সার্জিক্যাল স্ট্রাইক নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন! এই প্রশ্ন তুলে দেশের সেনাদের প্রতিই অনাস্থা প্রকাশ করছেন বিরোধীরা। রাজনীতির জন্যই এইসব করছেন বিরোধীরা। আপনার দেশে আপনাকে কেউ দাম দিচ্ছেন না। পাকিস্তানের টিভিতেই আপনাকে দেখানো হচ্ছে। এর থেকে দুখের কিছু থাকে না’

এবারের লোকসভা নির্বাচনে বিরোধীদের হাতের বড়ো অস্ত্র জি.এস.টি ও নোট বাতিল। এই দুটোকেই কার্যত একহাতে নিয়ে এবারের লোকসভা নির্বাচনে প্রচারের প্রস্তুতি নিচ্ছেন বিরোধী শিবির। প্রসঙ্গত, নোট বাতিল নিয়েও আমরা এরাজ্য থেকে বেশী প্রতিবাদের ঝড় দেখতে পেয়েছিলাম। সে বিষয়ে বিজেপি নেত্রী বলেন, ‘যেখানে ব্যাথা লাগবে সেখান থেকেই আহ! বেরোবে’

আসন্ন লোকসভা নির্বাচন নিয়ে বিজেপি নেত্রী প্রিয়াঙ্কা টিব্রেওয়ালের আরও বক্তব্য শুনতে ক্লিক করুন নীচের লিঙ্কে

মধুকল্পিতা চৌধুরী দাস 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.