‘এক মিনিটে ছবি,’ জ্যোতিপ্রিয়র হুমকিতে পুলিশের দ্বারস্থ খড়দহের বিজেপি প্রার্থী।

খড়দহের ভোট পর্ব নিয়ে রাজনৈতিক চাপানউতোর অব্যাহত। এবার মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক-এর বিরুদ্ধে হুমকির অভিযোগে পুলিশের দ্বারস্থ হলেন খড়দহের বিজেপি প্রার্থী জয় সাহা। থানায় তিনি অভিযোগ করেছেন মন্ত্রী তাঁকে মারের হুমকি দিয়ে শাসিয়েছেন।

রবিবার রাজ্যের বনমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের বিরুদ্ধে খড়দহ থানায় অভিযোগ দায়ের করেন খড়দহের বিজেপির প্রার্থী জয় সাহা। তাঁর অভিযোগ, শনিবার, ভোটের দিন জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক হুমকি দিয়েছিলেন তাঁকে। বলেছেন, তাঁকে ‘ছবি করে দেবেন এক মিনিটে।’ এ নিয়ে বারাকপুর পুলিশ কমিশনার এবং খড়দহ থানায় অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। এছাড়াও বিজেপির প্রাথী জয় সাহা জানান, অবিলম্বে পুলিশ কোন ব্যবস্থা না নিলে তিনি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকেও এ বিষয়ে জানাবেন।

উল্লেখ্য, খড়দহে ভোট নিয়ে শনিবার তৃণমূল ও বিজেপির মধ্যে উত্তেজনা ছিল চরমে। খড়দহ বিধানসভা কেন্দ্রের ১৯২ নম্বর বুথের বিজেপি প্রার্থীকে ঘিরে স্লোগান দেওয়ার অভিযোগ ওঠে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। ভোটারদের প্রভাবিত করা হচ্ছে, ভয় দেখানো হচ্ছে বলে অভিযোগ জানান খড়দহ কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী জয় সাহা। এ দিকে তৃণমূলের পাল্টা অভিযোগ, দলীয় প্রতীক লাগানো গাড়ি নিয়ে ঘুরছেন বিজেপি প্রার্থী। তৃণমূলের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হবে বলেও জানিয়েছে বিজেপি। ভোটের আগে থেকেই দফায় দফায় উত্তপ্ত হয়েছে খড়দা। জয় সাহার ওপরেও আগে হামলা হয় বলে অভিযোগ। তার মধ্যে আবার ভুয়ো ভোটারকে ঘিরে আরেক কাণ্ড হয়। বিজেপি প্রার্থী অভিযোগ করেন, বাংলাদেশের ভোটারদের দিয়ে ভোট নেওয়ার চেষ্টা করছিল তৃণমূল। এ নিয়ে সার্বিক তদন্ত চেয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে তিনি চিঠি লেখেন।

অন্যদিকে শনিবার আরেক ঘটনা ঘটে। খড়দহের প্রয়াত বিধায়ক কাজল সিনহার ছেলের সঙ্গে হাতাহাতিতে জড়ান জয়। পরে কেন্দ্রীয় বাহিনীর মারে হাসপাতালে ভর্তি হন কাজল সিনহার নাবালক পুত্র। এ নিয়ে তৃণমমূল জয়ের বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারি দেন। তার মধ্যে আরও এক থানা পুলিশ। যদিও এ নিয়ে মন্ত্রীর প্রতিক্রিয়া এখনও মেলেনি।

উল্লেখ্য, নির্বাচনের আগে থেকেই জয় সাহা নানা ভাবে তৃণমূলের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলছিলেন। তাঁর মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার আগের রাতেই দলীয় কর্মীদের ওপর হামলার অভিযোগ তোলেন তিনি। ফ্লেক্স, পতাকা, ফেস্টুন ছিঁড়ে ফেলা হয় বলে অভিযোগ করেন। উপনির্বাচনের ঠিক আগের রাতেই বিজেপির আরেক দলীয় কর্মীর ওপর হামলা করা হয় বলে অভিযোগ করেন। আবার তাঁর স্বামীর ছবি দিয়ে ভোটপ্রচারের অভিযোগে জয় সাহার বিরুদ্ধেও থানায় অভিযোগ করেন কাজল সিনহার স্ত্রী।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.