আজ ৩ এপ্রিল তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের গড়ে মোদীর প্রচারাভিযান৷ কলকাতায় ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ড ব়্যালিকে ঐতিহাসিক করে তোলার জন্য কোনও ত্রুটি রাখতে চাইছে না গেরুয়া শিবির৷ প্রস্তুতি পর্ব অন্তত সেই দিকটিই তুলে ধরছে৷ এই ব্রিগেডে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভায় হাজির হয়েছিলেন ২২ দলের প্রতিনিধিরা৷ সেই ব্রিগেডকে কতটা টেক্কা দিতে পারে মোদীর জনসভা সেই দিকেই চোখ রয়েছে অনেকের৷

ব্রিগেডের মাঠে যাতে বিজেপির কর্মী-সমর্থকেরা সহজেই পৌঁছে যেতে পারেন তার জন্য বিভিন্ন জেলা থেকে বেশ কিছু অতিরিক্ত ট্রেনের ব্যবস্থাও রয়েছে বলে জানা গিয়েছে৷ এছাড়াও অন্যান্য দিকেও নজর দেওয়া হয়েছে৷ ব়্যালিতে জনগণকে রোদের হাতে থেকে বাঁচাতে ৯ বিশাল জার্মান হ্যাঙ্গার লাগানো হয়েছে৷ বৃষ্টিতেও যা কাজে লাগবে৷

সভায় ১০০০-এর বেশি স্পীকার রয়েছে, যাতে মোদীর ভাষণ শুনতে কারও কোনও অসুবিধা না হয়৷ রয়েছে প্রায় ৩০০০ দলীয় পতাকা৷ ২০০০-এর বেশি মোদীর কাট আউট ময়দানের বিভিন্ন স্থানে রাখা হয়েছে৷ সভাস্থলের চারদিকে ১৫০ এলইডি স্ক্রিন রাখা হয়েছে বলে আজ তক সূত্রে খবর৷

সভাস্থলে সবকিছু যাতে সুষ্ঠুভাবে হয় তার জন্য প্রায় ২৫০০ স্বেচ্ছাসেবী উপস্থিত থাকবেন৷ মোদীর মূল মঞ্চ অনেকটাই ওপরে হবে এবং শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত হবে বলেও সূত্রের খবর৷ পানীয় জলের পাশাপাশি বসার জন্য চেয়ারেরও ব্যবস্থা রয়েছে৷

মোদীর এই সভা নিয়ে রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, বিভিন্ন বাধা উপেক্ষা করে বিজেপির কর্মী সমর্থকেরা মোদীর ভাষণ শুনতে আসবেন৷ এই সভার মাধ্যমেই মোদীর ক্ষমতা দেখতে পাবে অন্যান্য দলগুলি৷ অন্যদিকে উত্তর কলকাতা থেকে বিজেপি প্রার্থী রাহুল সিনহা জানিয়েছেন, ব্রিগেডে বিজেপি ইতিহাস সৃষ্টি করতে চলেছে৷ ৩ এপ্রিল বিজেপির ক্ষমতা দেখে অন্যান্য দলের মাথায় হাত পড়বে৷


Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.