তুষ্টিকরণ, মাফিয়ারাজ, চিটফান্ড, টিএমসির নতুন ব্যাখ্যা দিলেন অমিত শাহ

একদিকে চলেছে প্রথম দফার ভোট গ্রহণ, অন্যদিকে রাজ্যে তাবড় নেতাদের সভা। আর তাতেই চূড়ান্ত উত্তপ্ত উত্তর বঙ্গের রাজনীতি। মমতা রাহুলের পর বৃহস্পতিবার রায়গঞ্জেসভা করেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। সভা মঞ্চ থেকে টিএমসিপি এক নতুন ব্যাখ্যা দেন বিজেপি সভাপতি। তিনি বলেন টিএমসির অর্থ তুষ্টিকরণ, মাফিয়ারাজ ও চিটফান্ড। তার কথায় টিএমসিপি টি মানে , মমতা বাংলাদেশের অনুপ্রবেশকারীদের জন্য তুষ্টিকরণের রাজনীতি করছেন। অন্যদিকে এম মানে মাফিয়ারাজ, আর সি হচ্ছে চিটফান্ড।

একই সঙ্গে অমিত শাহ বলেন মমতার দেওয়া মা,মাটি মানুষ স্লোগানের অর্থ আজ পাল্টে গেছে । মা থেকে মমতা আজ হারিয়েছে। মাটি আজ অনুপ্রবেশকারীদের হাতে বেঁচে দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর মানুষ আজ টিএমসির গুন্ডাদের কাছে অত্যাচারি‌ত।

অমিত শাহ আহ্বান জানান
বাংলা থেকে তৃণমূলকে উৎখাত করতেই হবে। তিনি অভিযোগ করেন ইসলামপুরে বাংলা শিক্ষকের দাবিতে যে আন্দোলন গড়ে উঠেছিল সেখানে মমতার পুলিশের গুলিতে মৃত্যু হয়েছে ২ বিজেপি কর্মীর। উল্টে বিজেপির বিরুদ্ধেই কেশ দেওয়া হয়েছে। তার আরও অভিযোগ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সারা বাংলায় জোর করে উর্দু চাপিয়ে দিতে চাইছে।

অমিত শাহ দাবি করেন এই রাজ্যে বিজেপি ২৩ টি আসন জিতলেই তৃণমূল সরকারের কাউন্ট ডাউন শুরু হয়ে যাবে। তাই বাংলায় যে জঙ্গলের রাজত্ব চলছে তা থেকে মুক্তির জন্য মোদী সরকারকে আনতে হবে। গোটা দেশ মোদীকে প্রধানমন্ত্রী দেখতে চান। পশ্চিমবঙ্গের মানুষকেও মোদীকে সমর্থন করার আহ্বান জানান তিনি।

রায়গঞ্জের সভা থেকে তিনি স্পষ্ট করেই জানিয়ে দেন পশ্চিমবঙ্গে এনরসি মোদী সরকার আনবেই। তবে তার জন্য হিন্দু, শিখ তথা সর্বোপরি বাঙালির শরনার্থীদের উদ্বিগ্ন হবার প্রয়োজন নেই। তাদের মোদী সরকার নাগরিকত্ব দেবেই। তার দাবি আজ অবৈধ অনুপ্রবেশকারীরা দেশের গরীবের পেটের ভাত কেড়ে নিচ্ছে।

রাজ্যবাসীকে তিনি বলেন উন্নয়নের জন্য ৪ লাখ ২৪ হাজার কোটিটাকা কেন্দ্র দিয়েছে রাজ্যকে। কিন্তু সেই অনুযায়ী কোন কাজ হয়নি এখানে। তির মানে এটাই যে এই টাকা তৃণমূলের গুন্ডা খেয়ে নিয়েছে। তাই শাহের দাবি যতদিন দিদি ক্ষমতায় থাকবে ততদিন বাংলার উন্নয়নে হবে না।

বিজেপি সভাপতি বলেন রাজ্যের তৃণমূল সরকার এখন শুধু মাত্র একটি জ্বলে যাওয়া ট্রান্সফরমার ,ভিকে উন্নয়নের স্বার্থে উপরে ফেলতে হবে। না হলে কেন্দ্রীয় সরকারের পাঠানো টাকায় কোন দিন রাজ্যের উন্নয়ন হবে না ‌

অমিত শাহ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্দেশ্যে তোপ দেগে বলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দেশের জন্য ওয়ানের কাদ নিয়ে সন্দিহান। তিনি সার্জিকাল স্ট্রাইক বা এয়ার স্ট্রাইকের প্রমাণ চান বার বার। অমিত শাহ বলেন নিশ্চিন্তে থাকুন মমতা দিদি রাজ্যের জনতা আপনাকে ইভিএম মেশিনে সার্জিক্যাল স্ট্রাইকে ও এয়ার স্ট্রাইকের প্রমাণ দেবেন। তিনি কটাক্ষ করে বলেন, পাকিস্তানের সঙ্গে মমতার আসলে ইলু ইলু সম্পর্ক। কিন্তু বিজেপি সরকার পাকিস্তানের ছোঁড়া ইটের জবাব পাথর দিয়ে দেবে।

অমিত শাহ বলেন কংগ্রেস, বাম এবং তৃনমূল বাঙলা কে কাঙাল করে দিয়েছে। একমাত্র বিজেপি আবার পশ্চিমবঙ্গখে সোনার বাংলা করতে সক্ষম। তাই বিজেপির পক্ষে জনমত গড়ে তুলুন। গোটা গ্রাম জোট বেঁধে তৃণমূলের গুন্ডাদের প্রতিরোধ করুন এবং নিজের গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.