বিশ্বকাপের দল নির্বাচন নিয়ে খুশি ছিলেন না রবি শাস্ত্রী! বিতর্কের বোমা ফাটালেন বিরাটের প্রাক্তন কোচ

২০২১ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পরে টিম ইন্ডিয়ার প্রধান কোচের দায়িত্ব থেকে সরে গিয়েছেন রবি শাস্ত্রী। কিন্তু অবসর নেওয়ার পর থেকেই রবি শাস্ত্রী প্রতিদিনই নতুন নতুন বিতর্কের জন্ম দিচ্ছেন। টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন কোচ এখন দল নির্বাচন নিয়ে নতুন বিতর্কের জন্ম দিলেন। কোচ হিসাবে সাত বছর ধরে টিম ইন্ডিয়ার দায়িত্ব সামলেছেন। সেই সময় কালে দলের নানা প্রসঙ্গে তুলে বোমা ফাটাচ্ছেন শাস্ত্রী। এবার তিনি জানালেন দল নির্বাচনে কোচ ও অধিনায়কের হস্তক্ষেপ করা উচিত। অর্থাৎ তিনি বুঝিয়ে দিলেন দল নির্বাচনে কোচ ও অধিনায়কের হাত থাকে না। 

দল নির্বাচন প্রসঙ্গে রবি শাস্ত্রী স্টার স্পোর্টসের আলাপচারিতার বলেন, ‘আমি বিশ্বাস করি যে দল নির্বাচনের প্রক্রিয়ায় কোচ ও অধিনায়কের মতামত থাকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। যখন কোচের অনেক অভিজ্ঞতা থাকে তখন এটি আরও গুরুত্বপূর্ণ। বাছাই প্রক্রিয়ায় প্রধান কোচ এবং অধিনায়ককে অফিসিয়াল বলার অনুমতি দেওয়া উচিত।’ রবি শাস্ত্রী আরও বলেন তিনি আইসিসি বিশ্বকাপ ২০১৯-এর সময় দলে তিন উইকেটরক্ষক রাখার পক্ষে মোটেও ছিলেন না। তার মতে, দলে একজন অতিরিক্ত ব্যাটসম্যানকে অন্তর্ভুক্ত করা উচিত ছিল। শাস্ত্রী বলেন, ‘আমি দলে তিন উইকেটরক্ষক নেওয়ার পক্ষে ছিলাম না।এমএস ধোনি, ঋষভ পন্ত এবং দীনেশ কার্তিককে দলে রাখার যৌক্তিকতা কী ছিল? তবে আমি কখনই নির্বাচকদের কাজে হস্তক্ষেপ করিনি। যদি না আমাকে সাধারণ আলোচনার সময় আমার মতামত জানাতে চাওয়া হয়।’ট্রেন্ডিং স্টোরিজ

২০১৯ বিশ্বকাপে ভারতীয় দলে তিন উইকেটরক্ষক রাখা হয়েছিল। সাধারণত দল নির্বাচনের সময় নির্বাচক কমিটির সদস্যরা কোচ ও অধিনায়কের সঙ্গে আলোচনা করেন। তার পরই দল বাছাই করা হয়। অভিন্ন মতামতের ভিত্তিতে দল নির্বাচন করা হয়। তবে এ ক্ষেত্রে শাস্ত্রী যে কথা জানিয়েছেন তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। তাহলে কি কোচ ও অধিনায়কের সঙ্গে কথা না বলেই দল নির্বাচন করা হত। শাস্ত্রী এবার সরাসরি নির্বাচক ও বোর্ড কর্তাদের দিকে আঙুল তুললেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.