নাকে নল লাগিয়েও পারিক্কর বলেছিলেন, How is the josh….!

দীর্ঘ লড়াইয়ের অবসান। চলে গেলেন মনোহর পারিক্কর। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৬৩। দীর্ঘদিন ধরেই মারণরোগে আক্রান্ত ছিলেন তিনি। দলের সূত্র থেকে জানা গিয়েছিল, প্যানক্রিয়াটিক ক্যানসারে ভুগছিলেন প্রাক্তন প্রতিরক্ষামন্ত্রী পারিক্কর। তবে শেষের দিকে নাকে নল নিয়েও প্রশাসনিক কাজ করতে দেখা গিয়েছিল তাঁকে।

এমনকি, গত কয়েকদিন আগে গুরুতর অসুস্থ অবস্থাতেই একটি ব্রিজ উদ্বোধনে যান মনোহর। নাকে নল এবং সহকর্মীদের উপর ভরসা করেই পানাজিতে ‘অটল-সেতু’র উদ্বোধনে যান তিনি। সেখানে ভিড়ের মধ্যে আওয়াজ তোলেন How is the josh….! আর ওই অবস্থাতে তাঁর মুখে Josh-এর স্লোগান বসে থাকা কয়েকশ মানুষকে নাড়িয়ে তোলে। সঙ্গে সঙ্গে সবাই পালটা স্লোগান দেন, High Sir……! তাঁর কাছের মানুষদের মতে, তিনিই মানুষটা ছিলেন এমনই। অসুস্থতাকে জয় করতে যানতেন। আর তাই গুরুতর অসুস্থ অবস্থাতেও বারবার ছুটে গিয়েছেন। কখনও নিজের মুখ্যমন্ত্রীর দফতরে তো আবার কখনও গিয়েছেন প্রকল্পের উদ্বোধনে। নিজের অসুস্থতা যাতে কারোর কাছে মানসিক দুর্বলাতে না হয়ে দাঁড়ায় সেই চেষ্টা করে গিয়েছেন। কিন্তু সব লড়াই শেষ হল রবিবার সন্ধ্যায়।

তাঁর মৃত্যুতে যখন শোকাহত গোটা দেশ তখন অন্যদিকে তখন প্রয়াত মুখ্যমন্ত্রীর Josh স্লোগান ভাইরাল হচ্ছে নেট দুনিয়া। ইনস্পিরেনস দিচ্ছে নতুন প্রজন্মকে।

প্রসঙ্গত, শনিবার সকাল থেকেই তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে শুরু করে। সন্ধেয় তাঁর অবস্থা অত্যন্ত আশঙ্কাজনক বলে গোয়ার মুখ্যমন্ত্রীর ট্যুইটার হ্যান্ডেল থেকে ট্যুইট করা হয়। এরপর থেকেই তাঁর বাড়ির সামনে ভিড় জমতে শুরু করে। রাত আটটায় তাঁর মৃত্যুর খবর জানা যায়। পানাজিতে নজের বাড়িতেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.