পুলওয়ামা হামলার বদলা নিতে গত ২৬ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের মাটিতে জইশ জঙ্গিদের ঘাঁটি ধ্বংস করে দিয়ে আসে ভারত। বায়ুসেনার বিমান পাঠিয়ে হয় সেই অভিযান। এর ঠিক পরের দিন অর্থাৎ ২৭ ফেব্রুয়াই সীমান্ত পার করে ছুটে আস পাক বিমান। তাড়া করতে ছুটে যায় ভারতের মিগ, সুখোই। কার্যত কয়েক মিনিটের আকাশ-যুদ্ধ হয়ে যায় ভারত-পাক সীমান্তে।

ঠিক কী হয়েছিল সেদিন সকালে? বিশেষ বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানাল বায়ুসেনা:

  • ২৭ ফেব্রুয়ারি সকাল। সব দিক থেকে সতর্ক ছিল ভারতীয় বায়ুসেনা।
  • হঠাৎ লাইন অফ কন্ট্রোলের মাথায় ধেয়ে আসতে দেখা যায় একাধিক পাকিস্তানি বিমান।
  • সঙ্গে সঙ্গে ছুটে যায় ভারতীয় বায়ুসেনার বিমান। শত্রুদের সামলাতে এগিয়ে যায় একাধিক বিমান।
  • ভারতের দিক থেকে ছুটে গিয়েছিল Mirage-2000, Su-30 ও MiG-21 Bison.
  • উল্টোদিকে যেতে বাধ্য হয় পাক এয়ারক্রাফটগুলি। অনেকটা দূরে চলে যাওয়ায় পাক বিমান থেকে ছোঁড়া অস্ত্রগুলিও লক্ষ্যে আঘাত করতে পারেনি।
  • পাকিস্তানকে F-16 বিমান ব্যবহার করতে দেখা যায়। আর তার থেকে ছোঁড়া হয় একাধিক AMRAAM মিসাইল।
  • পাকিস্তানের মিসাইল গুঁড়িয়ে দিতে অস্ত্র ছোঁড়ে Su-30.
  • পাক মিসাইলের কিছুটা অংশ এসে পড়ে কাশ্মীরের রাজৌরিতে। জখম হয় এক সাধারণ নাগরিক।
  • সবকটি Su-30 ফাইটার জেট অক্ষতভাবে ফিরে আসে ভারতে। সুখোই বিমান ধ্বংস করার যে দাবি পাকিস্তান করছে, তা নিজেদের পরাজয় ঢাকতেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.