লঙ্কায় ভারতীয় দূতাবাস উড়িয়ে দেওয়ার ছক ছিল জঙ্গিদের: রিপোর্ট

ফের শ্রীলঙ্কায় বড়সড় বিস্ফোরণের ছক বানচাল করল স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন। শ্রীলঙ্কার এয়ারপোর্টের সামনে প্রচুর পরিমাণ বিস্ফোরক পড়ে থাকতে দেখা যায়। এরপর নতুন করে উত্তেজনা ছোড়ায়। গোটা এলাকা ঘিরে ফেলে পুলিশ। এরপর উদ্ধার হওয়া প্রচুর বিস্ফোরক নিরাপদ একটি স্থানে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় বলে জানা যাচ্ছে। সেখানে সেগুলি ধ্বংস করে দেওয়া হয় বলে দাবি করছে একাধিক সংবাদমাধ্যম। নতুন করে ফের বিস্ফোরক উদ্ধার হওয়াকে কেন্দ্র করে তীব্র আতঙ্ক তৈরি হয়েছে গোটা দেশজুড়ে। পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, গোটা শ্রীলঙ্কান এয়ারপোর্ট উড়িয়ে দেওয়ার ছক ছিল জঙ্গিদের।

প্রসঙ্গত, আজ রবিবার সকাল থেকে পরপর আটটি বিস্ফোরণে কেঁপে উঠেছে শ্রীলঙ্কা। গোটা দেশের একাধিক জায়গায় একের পর এক বিস্ফোরণ ঘটেছে। জঙ্গিদের মূলত টার্গেট ছিল খ্রিষ্টান, হোটেলের ভিনদেশের অতিথিরা এবং অবশ্য বিদেশিরা। কলোম্বোর ইতিহাসে এটাই সবথেকে বড় জঙ্গি হামলা। একের পর এক বিস্ফোরণের ঘটনায় ইতিমধ্যে ২০০ ছাড়িয়েছে মৃতের সংখ্যা। ৫০০ এরও বেশি মানূষ গুরুতর আহত। যাদের মধ্যে আশঙ্কাজনক বহু মানুষ। ফলে মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

এই ঘটনায় গোটা দেশজুড়ে কার্ফু জারি করা হয়েছে। চলছে চিরুনি তল্লাশি। এই অবস্থায় লঙ্কার বিমানবন্দরের সামনে প্রচুর বিস্ফোরক পড়ে থাকতে দেখেন সে দেশের বিমানবাহিনীর আধিকারিকরা। সঙ্গে সঙ্গে ফের গোটা দেশজুড়ে নতুন করে হাই-অ্যালার্ট জার করা হয়। যদিও সে দেশের নিরাপত্তা আধিকারিকরা তা উদ্ধার করে নিরাপদ জায়গায় নিয়ে গিয়ে তা ধ্বংস করে দিয়েছে বলে দাবি করছে সে দেশের সংবাদমাধ্যম। যদিও এই ঘটনার পর সেনাবাহিনী সহ সবাইকে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। নতুন করে সমস্ত জায়গায় তল্লাশি অভিজানের নির্দেশ প্রশাসনের।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.