২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির প্রার্থী ও গুজরাটের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র দামোদর মোদি ভারতের ১৪ তম প্রধানমন্ত্রী হিসাবে নির্বাচিত হন। ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনের প্রাক্কালে নামোর বিগত পাঁচ বছরের যাত্রা এখানে ছবির মাধ্যমে উপস্থাপন করা হল।

২৪ সে এপ্রিল, ২০১৪ : নরেন্দ্র মোদি লোকসভা নির্বাচনের প্রার্থী হওয়ার জন্য, মনোনয়নপত্র জমা দিতে যাওয়ার সময় একটি রোডশো করেন।

২৭ সে মার্চ, ২০১৫: প্রধানমন্ত্রী মোদি ‘গিভ ইট আপ’ নামক একটি প্রকল্প চালু করেন এবং সমাজের ধনী ব্যক্তিদের এলপিজি ভর্তুকি ছেড়ে দেওয়ার আহ্বান জানান। সেই আহ্বানে সাড়া দিয়ে ১.২৫ কোটি মানুষ তাদের এলপিজি ভর্তুকি ছেড়ে দেয়।

৮ই এপ্রিল ২০১৫: ছোট মাপের ব্যবসা শুরু করা বা তার উন্নয়নের জন্য ঋণ প্রদান উপলক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী মোদি ‘মুদ্রা যোজনা’ নামক প্রকল্পের সূচনা করেন।

১৭ই আগস্ট, ২০১৫: দুবাইয়ে আয়জিত ভারতীয়দের এক বিশাল জনসভায়, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী তাদের উদ্দেশ্যে ভাষণ দেন।

২৬ সে সেপ্টেম্বর, ২০১৫: মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সিলিকন ভ্যালিতে ‘ডিজিটাল ইন্ডিয়া’ প্রকল্পটির উপস্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

১১ই নভেম্বর,২০১৫: প্রধানমন্ত্রী মোদি জওয়ানদের সঙ্গে দিওয়ালি উদযাপন করেন।

১৩ ই নভেম্বর, ২০১৫: লন্ডনের ওয়েম্বলিতে, ভারতীয়দের এক বিশাল জনসমাবেশে ভাষণ দিতে গিয়ে, প্রধানমন্ত্রী মোদি ইউকে-তে রাজকীয় অভ্যর্থনা লাভ করেছিলেন।

১২ই ডিসেম্বর, ২০১৫: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং জাপানের প্রধানমন্ত্রী মাননীয় শিনজো আবে উত্তর প্রদেশের বারানসিতে দশাশ্বমেধ ঘাটে গঙ্গা আড়তির সময় প্রার্থনা নিবেদন করেন।

২১শে ফেব্রুয়ারী,২০১৬: প্রধানমন্ত্রী মোদী ১০৬ বছর বয়সী কুনওয়ার বাই-এর পদ স্পর্শ করেন এবং তাঁকে অভিনন্দন জানান, যিনি শৌচাগার তৈরির মহৎ উদ্দেশ্যে, তাঁর সমস্ত ছাগল বিক্রি করে দিয়েছিলেন।

৩রা এপ্রিল, ২০১৬: প্রধানমন্ত্রী মোদি সৌদি আরবের সর্বোচ্চ অসামরিক পুরস্কার অর্জন করেন।

১লা মে, ২০১৬: ৫ কোটি মানুষকে এলপিজি রান্নার গ্যাসের সুবিধা প্রদানের জন্য প্রধানমন্ত্রী মোদি ‘উজ্জ্বলা যোজনা’ নামক প্রকল্পটির সূচনা করেন।

১৫ ই মে, ২০১৬: প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদির মা প্রথমবারের জন্য, ৭ লোক কল্যাণ মার্গে তাঁর সাথে সাক্ষাৎ করেন।

৮ ই জুন, ২০১৬: মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে আয়োজিত কংগ্রেসের যৌথ অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি শ্রোতাদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন। তাঁর বক্তব্যটি মার্কিন কংগ্রেসের সদস্যদের ‘স্ট্যান্ডিং ওভেশন’‘র মাধ্যমে স্বীকৃতি লাভ করে।

৮ই জুন, ২০১৬: যুক্তরাষ্ট্রের সেনেটরদের সাদর সম্ভাষণ গ্রহণ করেন প্রধানমন্ত্রী মোদি।

১৫ ই আগস্ট,২০১৬: প্রধানমন্ত্রী মোদি স্বাধীনতা দিবসে লাল ফোর্ট থেকে দেশের উদ্দেশ্যে ভাষণ রাখেন।

১৫ ই অক্টোবর,২০১৬: রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিনের ভারত ভ্রমণকালে তাঁর সাথে সাক্ষাৎ করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

৩০ শে অক্টোবর, ২০১৬: প্রধানমন্ত্রী মোদি হিমাচল প্রদেশে সৈন্যদের সঙ্গে দিওয়ালি উদযাপন করেন।

৮ই নভেম্বর, ২০১৬: প্রধানমন্ত্রী মোদী ‘ডেমোনেটিজেশন বা মুদ্রারোহিতকরণ’ -এর সংবাদ ঘোষণা করেন।

১২ই নভেম্বর, ২০১৬: প্রধানমন্ত্রী মোদি ও প্রধানমন্ত্রী আবে জাপানের শিনকানসেনের কারখানা পরিদর্শনে যান। পরে, প্রধানমন্ত্রী মোদি শিঙানসেনে সওয়ার হয়ে পরিভ্রমণও করেন।

৫ই মার্চ,২০১৭: ইউপিতে বিধানসভা নির্বাচনের চূড়ান্ত রাউন্ডের প্রাক্কালে মোদী একটি বিশাল পথপ্রদর্শনের আয়োজন করেন। বিজেপি ৩২৫ টি আসনে জয়লাভ করে।

৩রা মে,২০১৭: কেদরনাথ মন্দির পরিদর্শনে যান প্রধানমন্ত্রী মোদি।

৩রা মে,২০১৭: কেদরনাথ মন্দির ঘুরে দেখেন প্রধানমন্ত্রী মোদি।

২৬শে মে,২০১৭: ব্রহ্মপুত্র নদীর উপর গড়ে ওঠা ধোলা সদিয়া সেতু পরিদর্শনে যান নরেন্দ্র মোদি।

১৭ই জুন,২০১৭: কোচি মেট্রোর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী মোদি।

২৭শে জুন, ২০১৭: হোয়াইট হাউসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের  সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন প্রধানমন্ত্রী মোদি!

১লা জুলাই,২০১৭: মধ্যরাতে সংসদে ঐতিহাসিক জিএসটির সূত্রপাত করেন প্রধানমন্ত্রী মোদি।

৪ঠা জুলাই,২০১৭: প্রথম ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী হিসাবে নরেন্দ্র মোদি ইসরায়েল সফরে যান।

৫ই জুলাই, ২০১৭: ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুর সাথে প্রধানমন্ত্রী মোদি।

২০শে জুলাই, ২০১৭: রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হওয়ার পর রামনাথ কবিন্দকে  শুভেচ্ছা জানান প্রধানমন্ত্রী মোদি।

১৫ই আগস্ট, ২০১৭: স্বাধীনতা দিবসে প্রধানমন্ত্রী মোদি।

১৩ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭: জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের সঙ্গে রোড শো করেন মোদি।

১৩ই সেপ্টেম্বর,২০১৭: সাবর্মতী আশ্রমে মোদি ও আবে.

১৪ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭: মোদি ও আবে আহমেদাবাদ ও মুম্বাইয়ের মধ্যে তৈরি হতে চলা ভারতের প্রথম বুলেট ট্রেনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

১৭ই সেপ্টেম্বর, ২০১৭: প্রধানমন্ত্রী মোদী সর্দার সারোয়ার বাঁধের উদ্বোধন করেন।

১৯শে অক্টোবর, ২০১৭: গুরেজ উপত্যকায় সৈন্যদের সঙ্গে দিওয়ালি উদযাপন করেন প্রধানমন্ত্রী মোদি।

২০শে অক্টোবর, ২০১৭: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এক বছরে দ্বিতীয়বার কেদারনাথ সফর করেন এবং জনসাধারণের উদ্দেশ্যে ভাষণ দেন।

২২শে অক্টোবর,২০১৭: ঘোঘা-দহেজ রো-রো ফেরি সার্ভিসের উদ্বোধন করেন মোদি।

২৩শে জানুয়ারী, ২০১৮: বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামে প্রধানমন্ত্রী মোদির ঐতিহাসিক ভাষণ।

১১ই মার্চ, ২০১৮: প্রধানমন্ত্রী মোদি ও ফরাসি প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রন আন্তর্জাতিক সৌর জোটের উদ্বোধন করেন।

১১ই মে, ২০১৮: প্রধানমন্ত্রী মোদি একটি প্রথাগত মৈথিলী পোষাকে সুসজ্জিত হয়ে জনকী মন্দির পরিদর্শন করেন…. জনকপুর ও অযোধ্যার মধ্যে বাস সার্ভিসের সূচনা করেন।

১৫ই আগস্ট, ২০১৮: স্বাধীনতা দিবসে প্রধানমন্ত্রী।

১৬ই আগস্ট, ২০১৮: প্রধানমন্ত্রী মোদি প্রয়াত অটল বিহারী বাজপেয়ীর  উদ্দেশ্যে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন।

১৭ই আগস্ট,২০১৮: অটল জি’র অন্তিম যাত্রায় অশ্রুসজল নরেন্দ্র মোদি সমস্ত পথ পায়ে হেঁটে পরিভ্রমণ করেন।

১৭ই আগস্ট, ২০১৮: অটল জি’র শেষকৃত্য সম্পন্ন প্রত্যক্ষ করেন প্রধানমন্ত্রী মোদী।  

১৭ই আগস্ট,২০১৮: অটল জি’র দেহাবশেষ আগুনে ভষ্মীভুত হতে দেখেন  প্রধানমন্ত্রী মোদী।

২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮: প্রধানমন্ত্রী মোদি রাঁচি থেকে পি এম -জয় (যা আউশমান ভারত বা মোদিকেআর নামেও পরিচিত)’র  উদ্বোধন করেন।

৩রা অক্টোবর, ২০১৮: প্রধানমন্ত্রী মোদি জাতিসংঘের দ্বারা ‘চ্যাম্পিয়ন অফ দা আর্থ’ পুরস্কারে সম্মানিত হন।

৩১শে অক্টোবর, ২০১৮: প্রধানমন্ত্রী মোদি  ‘স্ট্যাচু অফ ইউনিটি’ মূর্তিটির উদ্বোধন করেন।

৩০শে ডিসেম্বর, ২০১৮: আজাদ হিন্দ গঠনের ৭৫ তম বার্ষিকী উপলক্ষ্যে তেরঙ্গা উত্তোলন করেন প্রধানমন্ত্রী।

৩০শে ডিসেম্বর, ২০১৮: ভেস্তি বস্ত্র পরিহিত প্রধানমন্ত্রী মোদি।

১৫ই জানুয়ারী, ২০১৯: মোদি পদ্মনাভসস্বামী মন্দির পরিদর্শন করেন।

২৯শে জানুয়ারী, ২০১৯: ছাত্রছাত্রীদের সাথে ‘পরীক্ষা পে চর্চা’ নিয়ে আলোচনা করেন প্রধানমন্ত্রী।  

১১ই ফেব্রুয়ারী, ২০১৯: বৃন্দাবনে অক্ষয় পাত্র দ্বারা তিন বিলিয়ন আহারের সংস্থানের জন্য আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে দরিদ্র স্কুল শিশুকে নিজে হাতে খাইয়ে দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

১৫ই ফেব্রুয়ারী, ২০১৯: ভারতের প্রথম আধা-উচ্চ গতির বিলাসবহুল বন্দে ভারত এক্সপ্রেসের সূচনা করেন মোদি।

১৫ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৯: পুলওয়ামা সন্ত্রাসী হামলার শহীদদের উদ্দেশ্যে প্রণাম জানান নরেন্দ্র মোদি।

২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯: প্রয়াগে স্যানিটেশন কর্মীদের পা ধুইয়ে দেন নরেন্দ্র মোদি।

২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯: প্রয়াগরাজে মোদি।

২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯: প্রয়াগরাজে মোদি।

২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৯: মোদি জাতীয় যুদ্ধ স্মৃতিসৌধ’র উদ্দেশ্যে সম্মান  জানান।

৮ই মার্চ, ২০১৯: কাশি বিশ্বনাথ ধাম প্রকল্পের উদ্দেশ্যে নরেন্দ্র মোদি ভূমি পূজা করেন।

৮ই মার্চ, ২০১৯: নরেন্দ্র মোদি কাশী বিশ্বনাথ মন্দির পরিদর্শন করেন।

৮ই মার্চ, ২০১৯: নরেন্দ্র মোদি কাশি বিশ্বনাথ মন্দিরে প্রার্থনা জানান।

English News Source

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.