খাবারের মেনুতে গরুর মাংস না থাকায় থানার সামনে বিফকারি বিলি কংগ্রেসের!

কেরলে (Kerala) আরও একবার গরুর মাংস (Beef) নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি হল। উল্লেখ্য, রাজ্যে পুলিশ প্রশিক্ষণের মেনু থেকে গরুর মাংস সরানোর খবরের পর কেরলে রাজনৈতিক পারদ তুঙ্গে। এই খবর শুনে বিক্ষুব্ধ কংগ্রেস (Congress) কর্মীরা এবার কোঝিকোডের মুক্কম পুলিশ স্টেশনের সামনে প্রদর্শন করে, আর বিফকারি-ব্রেড বিলি করে।

কেরলে (Kerala) আরও একবার গরুর মাংস (Beef) নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি হল। উল্লেখ্য, রাজ্যে পুলিশ প্রশিক্ষণের মেনু থেকে গরুর মাংস সরানোর খবরের পর কেরলে রাজনৈতিক পারদ তুঙ্গে। এই খবর শুনে বিক্ষুব্ধ কংগ্রেস (Congress) কর্মীরা এবার কোঝিকোডের মুক্কম পুলিশ স্টেশনের সামনে প্রদর্শন করে, আর বিফকারি-ব্রেড বিলি করে।

কেরল (Kerala) প্রদেশ কংগ্রেস কমিটির সচিব কে. প্রবীণ কুমার (K. Pravin Kumar) অভিযোগ করেন যে, কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন আরএসএস এর সামনে মাথা নত করেছে। উনি বলেন, মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নেওয়ার পর পিনারাই বিজয়ন (Pinarayi Vijayan) নরেন্দ্র মোদীর (Narendra Modi) সাথে সাক্ষাৎ করেন, আর এরপরেই লোকনাথ বেহরাকে পুলিশের মহানির্দেশক বানানো হয়।প্রবীণ কুমার অভিযোগ করে বলেন, মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন আরএসএস এর অ্যাজেন্ডা কেরলে লাগু করার চেষ্টা করছে। কেরল কংগ্রেস গোটা রাজ্যে পিনরাই বিজয়নের এই মুখোশ খুলে দেবে। কংগ্রেসের অভিযোগের পর কেরল পুলিশ স্পষ্ট করে দিয়েছে যে, পুলিশ প্রশিক্ষণের মেনু থেকে বিফ সরান হয়নি।কেরল পুলিশ স্পষ্ট ভাবে জানায় যে, যেই মেনু দেখিয়ে হাঙ্গামা করা হচ্ছে, সেটা সরকারি হাসপাতালের মেনু। মেনু থেকে গো মাংস হটানো নিয়ে পুলিশের তরফ থেকে কোন আধিকারিক বয়ান জারি ক্রয়া হয়নি। আপনাদের জানিয়ে দিই, এর আগেই কেরল সরকার গো মাংসে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল, কিন্তু পিনরাই বিজয়ন সরকার ক্ষমতায় আসার পর সেই নিষেধাজ্ঞা তুলে দেওয়া হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.