কাশ্মীরে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের উপর আরও বড় সঙ্কট আসতে চলেছে। National Investigation Agency টেরর ফান্ডিং নিয়ে হুরিয়ত কনফারেন্সের চেয়ারম্যান মীরওয়াইজ উমর ফারুক আর পাকিস্তান সমর্থিত হুরিয়ত এর প্রধান সৈয়দ আলী শাহ গিলানির ছেলে নসীম গিলানিকে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য সমন পাঠিয়েছে। ২০১৭ তে টেরর ফান্ডিং মামলায় জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য তাঁদের দিল্লীতে তলব করা হয়েছে।

এনআইএ শনিবার পাঠানো সমনে তাঁদের দুজনকে সোমবার সকাল ১০ঃ৩০ এর মধ্যে দিল্লি এনআইএ এর মুখ্য অফিসে হাজিরা দিতে বলেছে। ২৬শে ফেব্রুয়ারি এনআইএ টেরর ফান্ডিং মামলায় মীরওয়াইজ সমেত অনেক বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতাদের বাড়ি এবং অফিসে তল্লাশি চালায়।

তল্লাশির সময় অনেক ইলেকট্রনিক্স গ্যাজেট আর নথি উদ্ধার করা হয়েছে। এনআইএন পুলিশ আর সিআরপিএফ জওয়ানদের উপস্থিতিতে মীরওয়াইজ, নসীম আর তেহরিক এ হুরিয়ত এর সভাপতি আশরাফ সেহরাই সমেত অনেক বিচ্ছন্নতাবাদী নেতাদের বাড়িতে তল্লাশি অভিযান চালিয়েছিল।

তাছাড়াও জেকেএলএফ এর নেতা ইয়াসিন মালিক, শাব্বির শাহ, জফর ভাট আর মসরত আলমের বাড়িতেও তল্লাশি চালানো হয়েছিল। মীরওয়াইজ আর সেহরাইকে বাদ দিয়ে বাকি সব নেতাদের কিছু সময়ের জন্য গ্রেফতার ও করা হয়েছিল।

আরেকদিকে মীরওয়াইজকে এনআইএ দ্বারা তলব করার খবর ছড়ানোর পর শ্রীনগরের কয়েকটি এলাকায় উত্তেজনা ছড়ায়। দেখতে দেখতে নৌহাট্টা, রাজৌরী কদল, সরাফ কদল এর এলাকা গুলোতে দোকান বন্ধ হয়ে গেছিল। এরপর শহরে সুরক্ষা বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.