জম্মু কাশ্মীর সীমান্তে চলতে থাকা উত্তেজনার মধ্যেই রাজস্থান সীমান্তে ড্রোন ওড়ালো পাকিস্তান। সেই ড্রোন অবশ্য গুলি করে নামিয়ে দিয়েছে ভারতীয় সেনারএয়ার ডিফেন্স উইং। একই দিনে ভারতের সীমার মধ্যে দুবার ড্রোন ঢোকালো পাকিস্তান।শনিবারই সকালে আর একবার ড্রোন ঢোকায় পাক সেনা।

সূত্রের খবর, শনিবার সন্ধ্যা সাতটা নাগাদ রাজস্থান সীমান্তে ভারতের আকাশে উড়তে দেখা যায় ড্রোনটিকে। সেনাবাহিনীর এয়ার ডিফেন্স উইং সেটিকে তাদের রাডারে দেখতে পায়। গঙ্গানগরের কাছে দেখা যায় ড্রোনটিকে। আধঘণ্টার মধ্যে সাড়ে সাতটা নাগাদ সেটিকে গুলি করে নামিয়ে ফেলে সেনাবাহিনী। সেনাঘাঁটি ও গতিবিধির তথ্য জানার জন্য ক্যামেরা লাগানো অত্যাধুনিক প্রযুক্তি যুক্ত এই সব ড্রোন ব্যবহার করে বিশ্বের সব সেনাবাহিনীই।

শনিবারই ভোর পাঁচটা নাগাদ দিকে হিন্দুমালকোট সীমান্তের কাছে শ্রীগঙ্গানগর দিয়ে ভারতের আকাশ সীমায় ঢোকার চেষ্টা করেছিল পাকিস্তানের পাঠানো আরও একটি ড্রোন। কিন্তু বিএসএফ জওয়ানরা সেটির দিকে গুলি ছুড়তে শুরু করলে সেটি ফিরে যায়। সকালের দিকে সীমান্তে গুলি বিনিময় শুনতে পান স্থানীয় বাসিন্দারা।

এর আগে গত ৪ মার্চ রাজস্থানের বিকানেরে আরও একটি পাকিস্তানি ড্রোনকে এয়ার টু এয়ার মিসাইল ছুড়ে করে নামায় ভারতীয় বায়ু সেনা। এ ভাবে একাধিক বার ভারতের আকাশে ড্রোন ঢোকানোর চেষ্টা করেছে পাকিস্তান। তবে প্রতিবারই ব্যর্থ হয়েছে। গত ২৬ ফেব্রুয়ারি গুজরাটের কচ্ছের কাছে আরও ওকটি পাক ড্রোনকে নামিয়ে দেয় ভারতের স্পাইডার সারফেস টু এয়ার ক্ষেপণাস্ত্র।

সংবাদসংস্থা এএনআই জানাচ্ছে, শনিবার রাজস্থানেরই জয়সলমিরের সেনা শিবিরের কাছে সন্দেহজনক ভাবে ঘোরাঘুরি করায় কাদের খান নামে এক যুবককে আটক করা হয়েছে। সে গত বছর একবার পাকিস্তানে গেছিল বলে জেরায় স্বীকার করেছে। তাকে আরও জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.