‘হিন্দু সন্ত্রাস’ অপপ্রচারকে মিথ্যা প্রমাণ করতে চারটি ওয়েব ডকুমেন্টারি মুক্তি পেতে চলেছে

হিন্দু সন্ত্রাস এর মনগড়া কাহিনীকে ভুল প্রমাণ করার জন্য রাষ্ট্রীয় সয়ংসেবক সংঘ (আরএসএস) এর যোগাযোগ ও প্রচার শাখা এবং বিশ্ব সংবাদ কেন্দ্র (ভিএসকে) একযোগে কয়েকটি তথ্যচিত্র প্রকাশ করবে বলে হিন্দুস্তান টাইমসকে সুত্রে জানা গেছে।

মালেগাঁও এবং মক্কা মসজিদ বিস্ফোরণের ঘটনা ও মামলার শুরু থেকে ও পরবর্তীতে বিভিন্ন ঘটনাবলীর উপর ভিত্তি করে ডকুমেন্টারিগুলি নির্মিত হয়েছে এবং ইউটিউব এর মতো ইন্টারনেট প্ল্যাটফর্মগুলিতে মুক্তি পাবে বলে জানা গেছে।

কেস ডায়েরিগুলির উপর ভিত্তি করে নির্মিত ডকুমেন্টারিগুলির প্রথমটি ভাগভ আতঙ্ক ব্রহ্মজাল (গৈরিক সন্ত্রাস ভ্রম)। যার প্রযোজক রাজ চাওলা বলেন, “সাংবাদিক হওয়ার কারণে আমি এই মামলাগুলো অনুসরণ করেছি এবং কোন কারণগুলির ভিত্তিতে আদালতগুলি তাদের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছেন তা খুঁজে বের করতে চেষ্টা করেছি। কিভাবে প্রমাণ গুলি আদালতে উপস্থাপন করা হয় এবং কিছু ক্ষেত্রে কাটা ছেঁড়া হয় তা এই তথ্যচিত্রগুলিতে প্রকাশ পেয়েছে”। আরও বলেন তিনি আরএসএসের সাথে যুক্ত নন এবং তাঁরা কাজটির অর্থ সাহায্য করেননি।

আরএসএস কঠোরভাবে মালেগাঁও এবং মক্কা মসজিদ বিস্ফোরণে অভিযুক্ত স্বাদ্ধী প্রঞ্জা ঠাকুর ও স্বামী আসীমানন্দের বিরুদ্ধে  ওঠা “হিন্দু সন্ত্রাস” অভিযোগের প্রতিবাদ করছে ।

মক্কা মসজিদ ও সমঝোতা এক্সপ্রেস সন্ত্রাসী বোমা হামলায় স্বামী আসীমানন্দ কে ইতিমধ্যে মুক্তি দেওয়া হয়েছে, মালেগাঁও বিস্ফোরণের মামলায় জামিনে থাকা ঠাকুর বিজেপির প্রার্থী হিসেবে ভূপাল থেকে লোকসভা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। জাতীয় তদন্ত সংস্থা (এনআইএ)  ঠাকুরের বিরুদ্ধে ওঠা মামলা ও অভিযোগ নিয়ে এসম্পর্কে কোন চ্যালেঞ্জ করেনি।

সংঘ তরফে বলা হয়, ঠাকুর কে প্রার্থী করে কংগ্রেসের প্রার্থী দিগভিজয় সিংকে “উপযুক্ত উত্তর” দেওয়া হয়েছে কারণ, তিনই “গৈরিক সন্ত্রাস বা হিন্দু সন্ত্রাস ” শব্দটির জন্মদাতা বলে অভিযুক্ত।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.