পাকিস্তানকে পিছনে ফেলে দিলো কংগ্রেস, জনতা কংগ্রেসকে দেশের শত্রু নং-১ বলে পরিচয় দিলো!

পুলওয়ামা হামলা আর ভারতের এয়ার স্ট্রাইকের পর পাকিস্তানের সব রাজনৈতিক দল ভারতের বিরুদ্ধে এক হয়েছে। আরেকদিকে ভারতের ২১টি বিরোধী দল ভারতের বিরুদ্ধে পাকিস্তানের সূরে সূর মেলাচ্ছে। আর এই দল গুলোর নেতৃত্বে আছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী

কংগ্রেস এবং কংগ্রেস প্রেমী অনেক দলই পুলওয়ামা হামলার পর পাকিস্তানকে ক্লিনচিট দিয়েছে। আর তাঁদের মধ্যে অন্যতম হলেন, কংগ্রেস নেতা এবং মন্ত্রী নবজ্যোত সিং সিধু। তাছাড়াও কংগ্রেসের অনেক নেতাই এয়ার স্ট্রাইক নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছে।

সন্দেহ প্রকাশ করার মধ্যে অন্যতম নেতা হলেন, কংগ্রেস এবং মধ্যপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী দিগ্বিজয় সিং। বিকে হরিপ্রসাদ ও বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন। আর তাঁদের মন্তব্যের জেরে পাকিস্তানে খুশির হাওয়া বইছে।

অনেক পাকিস্তানি মিডিয়া কংগ্রেসকে ধন্যবাদ জানিয়েছে। তাছাড়াও পাকিস্তানের অনেক নেতা এবং মন্ত্রীরা পাকিস্তানের সংসদে রাহুল গান্ধীকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। গোটা পাকিস্তান কংগ্রেসের কাজে বেজায় খুশি। আর সেটা সেখানকার মিডিয়া আর নেতারা তাঁদের বয়ানে বুঝিয়ে দিয়েছেন।

হিস্টোরি অফ ইন্ডিয়া নামের একটি টুইটার প্রোফাইল টুইট করে জিজ্ঞাসা করে যে, ভারতের প্রধান শ্ত্রু কে? ওই টুইটে দুটি অপশন দিয়েচে। সবাইকে বলা হয়েছে যদি আপনারা কংগ্রেসকে দেশের প্রধান শত্রু মানেন, তাহলে টুইটটি রিটুইট করুন। আর যদি পাকিস্তানকে প্রধান শত্রু ভাবেন, তাহলে টুইটটি লাইক করুন।

৭ই মার্চ ওই প্রোফাইলের মাধ্যমে সবার কাছে তাঁদের মতামত জানতে চাওয়া হয়। আর আজ ৮ মার্চ রাত ৯তা পর্যন্ত, ওই পোস্টে পাঁচ হাজারের উপরে রিটুইট হয়। আর শুধু ৭৫০ এর মত লাইক আসে। এর মান্সে স্পষ্ট যে দেশের মানুষ কংগ্রেসকে পাকিস্তানের থেকে বড় শত্রু বলে ভাবে।

আর এরজন্য পাকিস্তানকে অনেক পিছনে ফেলে এগিয়ে গেলো কংগ্রেস। সবার ধারণা এটাই যে, কংগ্রেস পাকিস্তানের থেকে বেশি ভারতকে ক্ষতি করেছে!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.