কর্ণাটকে ১৫ টির মধ্যে ১২ টি আসনেই এগিয়ে বিজেপি, ফলাফলের আগেই হার স্বীকার করল কংগ্রেস

কর্ণাটকে (Karnataka) গত ৬ ডিসেম্বর ১৫ টি বিধানসভা আসনে উপ নির্বাচন হয়। আর আজ ১৫ টি আসনে গণনা প্রক্রিয়া চলছে। রাজ্যের সমস্ত গণনা কেন্দ্রে কড়া সুরক্ষার ব্যাবস্থা করা হয়েছে। সকাল আটটা থেকে গণনা শুরু হয়েছে। দুপুরের পর সমস্ত আসনের পরিনাম ঘোষণা হবে। এর আগে কংগ্রেস আর জেডিএস এর ১৭ জন বিক্ষুব্ধ বিধায়ককে অযোগ্য ঘোষণা করা হয়েছিল। এরপর ১৫ টি আসনে আবার নির্বাচন করানো হয়। হাইকোর্টে মোকদ্দমা চলার কারণে দুটি আসনে উপ নির্বাচন করানো হয়নি।

এই ১৫ টি আসনের মধ্যে ১২ টি তে কংগ্রেস আর তিনটি জেডিএস এর দখলে ছিল। ২২৪ সদস্যের বিধানসভায় ১৭ বিধায়ককে অযোগ্য ঘোষণা করার পর সংখ্যা ২০৭ এ নেমে আসে। আর ২৯ জুলাই ২০১৯ এ বিজেপির রাজ্যসভাপতি বি.এস ইয়েদুরাপ্পা কর্ণাটক বিধানসভায় সংখ্যাগরিষ্ঠতা প্রমাণ করেন।

কর্ণাটকের স্থানীয় চ্যানেলের এক্সিট পোল অনুযায়ী ভারতীয় জনতা পার্টি ৯ টি থেকে ১২ টি আসনে জয় হাসিল করবে। ভোট গণনার আগে কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী বি.এস ইয়েদুরাপ্পা বলেন, আমরা আমদের কার্যকাল কোন বাধা ছাড়াই সম্পূর্ণ করব। রাজ্যের জনতা আমাদের উপরে অনেক আশা করে আছে বলে জানান তিনি। আরেকদিকে কংগ্রেস আর জেডিএস আশা প্রকাশ করে বলেছে যে, বিক্ষুব্ধ বিধায়কদের অযোগ্য ঘোষণা করার পর এবার বিজেপির টিকিটে নির্বাচনে লড়াই করা প্রার্থীদের বয়কট করবে জনতা।

কর্ণাটকের উপনির্বাচনের পরিসংখ্যান অনুযায়ী ভারতীয় জনতা পার্টি ১২ টি আসনে এগিয়ে আছে। কংগ্রেসের ২ টি আসনে এগিয়ে আছে। একটি আসনে নির্দলীয় প্রার্থী এগিয়ে আছে। জেডিএস প্রথমে দুটি আসনে এগিয়ে থাকলেও, এখন সব কয়েকটি আসনেই পিছিয়ে আছে।

আরেকদিকে কংগ্রেসের নেতা ডিকে শিবকুমার ফলাফল ঘোষণার আগেই হার স্বীকার করে নিয়েছে। কংগ্রেস নেতা ডিকে শিবকুমার বলেন, আমাদের এই ১৫ টি আসনের উপ নির্বাচনে ভোটারদের জনাদেশকে সন্মান করতে হবে। ভোটাররা দলবদল করা প্রার্থীদের স্বীকার করে নিয়েছে। আমরা হার স্বীকার করলাম। তবে আমরা এখনো আশা ছারিনি।


Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.