বাংলাদেশীদের বিচিত্র ধারনা। ঐতিহ্য নিয়ে তাদের কিছু যায় আসে না। নববর্ষ উদযাপন তাদের কাছে নিছক উতসব। ‘মঙ্গল যাত্রা’ নামে একটা হুল্লোড় শুরু হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গের কিছু বিচিত্রকর্মা মানুষ এই হুল্লোড় গা ভাসাচ্ছেন।

বাংলাদেশীদের ধারনা, আমাদের নববর্ষ পালন শুরু হয়েছে মোগল বাদশা আকবরের রাজ্যাভিষেকের দিন (২ রবিউল ৯৬৩ হিজরি অর্থাৎ ১৪ ফেব্রুয়ারি ১৫৫৬ খ্রি) থেকে। তুরস্কের পণ্ডিত আমি-ফতেহ ঊল্লাহ শিরাজি-কে আকবর রাজস্ব আদায়ের ঊদ্দ্যেশ্যে হিজরির সঙ্গে ভারতীয়দের বর্ষগণনা-রীতি বদলে দেন। পশ্চিমবঙ্গের অতিরিক্ত উদার শিক্ষিত সমাজ এই আশ্চর্য একটি মেনে নিয়েছেন। যুক্তি নেই, ঐতিহ্য নেই, আত্মমর্যাদা নেই। সর্বত্র গড্ডলিকা প্রবাহ। ভয় পাছে লোকে সাম্প্রদায়িক বলে।নিজেদের ঐতিহ্য সংস্কৃতিকে ভুলে মুক্ত কচ্ছ হয়ে গা ভাসানোর মধ্যে কিসের গৌরব।

যদি প্রশ্ন করি, মোগল বাদশা আকবরের মন্ত্রী রাজা টোডরমল্ল আসার আগে কি এদেশে বর্ষগণনা-রীতি গণনা, পূজা পার্বণ দশকর্ম লগ্ন বিচার রাজস্ব ব্যবস্থা ছিল না? মরুভূমির যুদ্ধ ক্ষ্যাপাদের আগে আমাদের জীবন কি আদিম আরণ্যক ছিল? আসলে আমরা প্রশ্ন করতে ভুলেছি।

আমাদের উৎসব দুই রকম ভাবে নিরূপিত হয়। ১. সৌর পদ্ধতিতে ২. চান্দ্র পদ্ধতিতে। আমাদের পঞ্জিকা সৌর পদ্ধতিতে।

অচিন্ত্য বিশ্বাস

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.