ভারতে দ্বিতীয় লোকসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল ১৯৫৭ সালে। ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস ১৯৫২ সালের মত এ নির্বাচনেও জয়লাভ করে। সে বছর ভোট হয়েছিল ২৪ ফেব্রুয়ারি থেকে ৯ জুন৷

সারা দেশে ৪৯৪টি আসনে লড়াই হয়েছিল অর্থাৎ গত লোকসভার তুলনায় ৫টি আসন বেড়েছিল ৷ এর মধ্যে কংগ্রেসের ৪৯০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে ৩৭১ জন প্রার্থী নির্বাচনে জয়ী হয়েছিলেন। এছাড়াও দলটি দলটি মোট ৫৭,৫৭৯,৫৮৯ ভোটসহ ৪৭.৭৮% সংখ্যা গরিষ্ঠতা নিয়ে সরকার গঠন করেছিল। পন্ডিত জওহরলাল নেহরু পুনরায় ক্ষমতায় এসে ফের প্রধানমন্ত্রী হন। ১১ই মে ১৯৫৭ সালে শ্রী মাদাভুসি সর্বসম্মতিক্রমে নতুন লোকসভার অধ্যক্ষ নির্বাচিত হন। তার নামটি প্রস্তাব করেন প্রধানমন্ত্রী নেহেরু ও সত্যনারায়ন সিনহা।

দ্বিতীয় সাধারণ নির্বাচনে ৪০৩টি নির্বাচনী এলাকা থেকে ৪৯৪টি আসন ছিল যা ভারতের ১৩টি প্রদেশ ও ৪টি কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল থেকে প্রতিনিধিত্ব করেছিল। এই বারে দ্বিতীয় বৃহত্তম দল ছিল ভারতীয় কমিউনিস্ট পার্টি বা সিপিআই ৷ সেবার ২৭টি আসন জিতে এই বাম দলটি৷ অন্যদিকে মোট ৪২জন নির্দল প্রার্থী জয়ী হয়৷ দ্বিতীয় লোকসভা এর পূর্ণ মেয়াদ শেষ করে ৩১শে মার্চ ১৯৬২ সালে ভেঙ্গে যায়।

গত নির্বাচনের তুলনায় অবশ্যই পরিকাঠামো অনেক উন্নত হয়েছিল ফলে নির্বাচন কমিশনের এই ভোট পরিচালনা করা আগের তুলনায় কিছুটা সহজ হয়েছিল৷ লোকসভার পাশাপাশি রাজ্যে রাজ্য বিধানসভা ভোটও হয়েছিল ৷ তবে প্রথম বুথ দখলের ঘটনা ১৯৫৭ সালের নির্বাচনেই ঘটেছিল ৷ সেবার তা ঘটেছিল রাচিয়াহিতে যা বেগুসরাইয়ের মাটিহানি বিধানসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত ছিল৷ ওই বুথটি এখনও আছে কাছারিতলায় তবে বুথ দখলের জন্ম যেখান থেকে সে স্মৃতি ক্রমশ হারিয়ে যাচ্ছে৷

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.