অত্যধিক ভূগর্ভস্থ জল তোলায় নিচু হয়ে যাচ্ছে দিল্লির কিছু অংশ: সমীক্ষা

1/5কল খুললেই জল। তাই তার যথেচ্ছ অপচয়। কিন্তু কখনও কি ভেবে দেখেছেন, যে এই জল কোথা থেকে আসছে? ভাবছেন, এ আর কী এমন ব্যাপার। মাটির নিচে তো অঢেল জল। সেটাই পাম্প করা হচ্ছে। ফাইল ছবি : পিটিআই (PTI)

তবে অপচয় করলে শেষ হয়ে যায় ভূগর্ভস্থ জলও। আর তার পরিণতি হতে পারে মারাত্মক। জলের অভাব তো হবেই, পাশাপাশি নিচু হয়ে যেতে পারে বিপুল এলাকার ভূপৃষ্ঠ। ঠিক এমনটাই এখন হচ্ছে দিল্লিতে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই) (PTI)
2/5তবে অপচয় করলে শেষ হয়ে যায় ভূগর্ভস্থ জলও। আর তার পরিণতি হতে পারে মারাত্মক। জলের অভাব তো হবেই, পাশাপাশি নিচু হয়ে যেতে পারে বিপুল এলাকার ভূপৃষ্ঠ। ঠিক এমনটাই এখন হচ্ছে দিল্লিতে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই) (PTI)
সমীক্ষা বলছে, এর ফলে বসবাসের এলাকা, রাস্তাঘাট তো ক্ষতিগ্রস্থ হবেই। প্রভাবিত এলাকার মধ্যে রয়েছে বিমানবন্দরও। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই) (PTI)
3/5সমীক্ষা বলছে, এর ফলে বসবাসের এলাকা, রাস্তাঘাট তো ক্ষতিগ্রস্থ হবেই। প্রভাবিত এলাকার মধ্যে রয়েছে বিমানবন্দরও। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই) (PTI)
জাতীয় রাজধানী অঞ্চলের প্রায় ১০০ বর্গ কিমি এলাকায় ভূস্তর অবনমনের উচ্চ ঝুঁকি রয়েছে। যার মধ্যে সবচেয়ে বড় এলাকাটি প্রায় ১২.৫ বর্গ কিলোমিটার বিস্তৃত। এটি দক্ষিণ-পশ্চিম দিল্লির কাপাশেরায়, বিমানবন্দর থেকে মাত্র ৮০০ মিটার দূরে। গবেষকরা উপগ্রহ ডেটা ব্যবহার করে এই তথ্য পেয়েছেন।  (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই) (PTI)
4/5জাতীয় রাজধানী অঞ্চলের প্রায় ১০০ বর্গ কিমি এলাকায় ভূস্তর অবনমনের উচ্চ ঝুঁকি রয়েছে। যার মধ্যে সবচেয়ে বড় এলাকাটি প্রায় ১২.৫ বর্গ কিলোমিটার বিস্তৃত। এটি দক্ষিণ-পশ্চিম দিল্লির কাপাশেরায়, বিমানবন্দর থেকে মাত্র ৮০০ মিটার দূরে। গবেষকরা উপগ্রহ ডেটা ব্যবহার করে এই তথ্য পেয়েছেন।  (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই) (PTI)
বিমানবন্দরের নিকটবর্তী এলাকায় জমি নেমে যাওয়ার হার ত্বরান্বিত হচ্ছে। অবনমনের প্রবণতা দ্রুত বিমানবন্দরের দিকে প্রসারিত হচ্ছে। এমনটাই বলছেন আইআইটি বম্বে, জার্মান রিসার্চ সেন্টার ফর জিওসায়েন্সেস, কেমব্রিজ এবং সাউদার্ন মেথডিস্ট ইউনিভার্সিটির গবেষকরা। ফাইল ছবি : হিন্দুস্তান টাইমস (HT_PRINT)
5/5বিমানবন্দরের নিকটবর্তী এলাকায় জমি নেমে যাওয়ার হার ত্বরান্বিত হচ্ছে। অবনমনের প্রবণতা দ্রুত বিমানবন্দরের দিকে প্রসারিত হচ্ছে। এমনটাই বলছেন আইআইটি বম্বে, জার্মান রিসার্চ সেন্টার ফর জিওসায়েন্সেস, কেমব্রিজ এবং সাউদার্ন মেথডিস্ট ইউনিভার্সিটির গবেষকরা। ফাইল ছবি : হিন্দুস্তান টাইমস (HT_PRINT)

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.