এত দেরিতে আবেদন! নেতাজি ট্যাবলো নিয়ে মামলা খারিজ করে দিল হাইকোর্ট

আগামী বুধবার প্রজাতন্ত্র দিবস। সেই পরিস্থিতিতে কোনও নির্দেশ জারি করার কোনও যুক্তি নেই। সেজন্য নেতাজির ট্যাবলো নিয়ে দায়ের হওয়া জনস্বার্থ মামলা খারিজ করে দিল কলকাতা হাইকোর্ট

সোমবার হাইকোর্টে প্রধান বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তব এবং বিচারপতি রাজর্ষি ভরদ্বাজের ডিভিশন বেঞ্চে সেই মামলার শুনানিতে মামলাকারী তথা আইনজীবী রমাপ্রসাদ সরকার প্রশ্ন তোলেন, কী কারণে নেতাজির ট্যাবলো বাদ দেওয়া হয়েছে? যদিও প্রধান বিচারপতি জানতে চান, এত দেরি করে কেন মামলা দায়ের করা হয়েছে? আগামী বুধবারই তো প্রজাতন্ত্র দিবস। হাতে একেবারেই কম সময় পড়ে আছে। সেই পরিস্থিতিতে হাইকোর্ট কী করতে পারবে, তা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন প্রধান বিচারপতি। পরবর্তীতে চূড়ান্ত রায়ে সেই বিষয়টি জানিয়ে মামলা খারিজ করে দেওয়া হয়।

তারইমধ্যে দিল্লিতে প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজে কেন নেতাজির ট্যাবলো বাদ পড়েছে, সেই ব্যাখ্যা দেয় কেন্দ্র। সোমবার কলকাতা হাইকোর্টে কেন্দ্রের আইনজীবী তথা অতিরিক্ত সলিসিটর জেনারেল ওয়াই জে দস্তুর দাবি করেন, নৌ বিদ্রোহের সময় যোগ দিয়েছিল আজাদ হিন্দ ফৌজ। সেই বিদ্রোহে নিহত ফৌজিদের শ্রদ্ধা জানিয়ে একটি ট্যাবলো থাকছে। তাই পৃথকভাবে পশ্চিমবঙ্গের ট্যাবলো রাখা হয়নি।

উল্লেখ্য, দিল্লির রাজপথে প্রজাতন্ত্র দিবসের কুচকাওয়াজে নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর জীবন নিয়ে ট্যাবলোর প্রস্তাব দিয়েছিল পশ্চিমবঙ্গ। কিন্তু সেই প্রস্তাব গৃহীত হয়নি। নেতাজির ট্যাবলোর প্রস্তাব খারিজ হয়ে যাওয়ায় বিতর্ক শুরু হয়। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চিঠি লেখেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রবিবার নেতাজির জন্মজয়ন্তীতেও নেতাজির ট্যাবলোর প্রস্তাব খারিজ করে দেওয়ায় কেন্দ্রকে তোপ দাগেন তিনি। জানিয়ে দেন, প্রজাতন্ত্র দিবসে দিল্লির রাজপথে নেতাজির ট্যাবলো না থাকলেও রেড রোডের কুচকাওয়াজে সেই ট্যাবলো থাকবে। সেইসব বিতর্কের মধ্যেই গত বৃহস্পতিবার হাইকোর্টে মামলা দায়ের করেছিলেন আইনজীব। 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.