৬০০ কোটি টাকার PWD দুর্নীতিতে ত্রিপুরার প্রাক্তন মন্ত্রী বাদল চৌধুরীর বিরুদ্ধে FIR দায়ের! আক্রোশ প্রকাশ বামপন্থীদের।

ত্রিপুরায় এখন বিজেপি সরকার রয়েছে এবং দুর্নীতি দমন পক্রিয়া দ্রুতগতিতে চলছে। রাজ্যে পূর্ববর্তী সরকারের সময় যে দুর্নীতিগুলি হয়েছিল তার উপরেও তদন্ত চলছে। ৬০০ কোটি টাকার দুর্নীতি মামলায় প্রাক্তন পূর্তমন্ত্রী বাদল চৌধুরীর বিরুদ্ধে FIR দায়ের করা হয়েছে। বাদল চৌধুরী এখন পলাতক এবং পুলিশ উনাকে গ্রেফতার করার জন্য রাজ্যজুড়ে তল্লাশি চালাচ্ছে। গতকাল এসডিপিও অনির্বান দাস ও ধ্রুব নাথ বাদল চৌধুরীকে গ্রেফতারের জন্য সিপিআইএম পার্টি অফিস পর্যন্ত পৌঁছেছিলেন। তবে সেখানে পুলিশকে তল্লাশি করতে দেওয়া হয়েছে কিনা তা এখনও স্পষ্ট নয়।

আগরতলা রেলস্টেশন থেকে শুরু করে MBB বিমানবন্দরেও কড়া নজর রাখা হয়েছে। যাতে বাদল চৌধুরী পালিয়ে যেতে না পারে। গোয়েন্দাদের মতে বাদল চৌধুরী এখন রাজ্যের কোনো গোপন ঠিকানায় লুকিয়ে আছে। বামপন্থী নেতা এখনও রাজ্যে থেকে পালাতে পারেনি বলে মত তাদের। পূর্তদপ্তরের প্রাক্তন বাস্তুকার সুনীল ভৌমিককে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং জিজ্ঞাসাবাদ চালানো হচ্ছে। আগরতলা পশ্চিম থানায় সুনীল ভৌমিককে রাখা হয়েছে।

৬০০ কোটি টাকার PWD দুর্নীতি নিয়ে ত্রিপুরার সরকার ও প্রশাসন সিপিএম নেতাদের পেছনে হাত ধুয়ে লেগে পড়েছে। ভারতীয় দণ্ড বিধির ৪০৯, ৪১৮, ৪২০, ২০১, ১২০(বি) ও ১৩ পিসি ধারায় মামলা দায়ের হয়েছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ কর্তৃপক্ষ। মামলা দায়ের হওয়ার পরই সুনীল ভৌমিককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বাকি অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের জন্য রাজ্যজুড়ে প্রচেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ। পুলিশ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন আমরা FIR এর ভিত্তিতে কাজ করছি, এখন আমরা এ বিষয়ে বেশিকিছু জানাতে পারবো না।

কমিউনিস্ট পার্টি অফ ইন্ডিয়া একটা প্রেস বিবৃতি প্রকাশ করে এটাকে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা ও ষড়যন্ত্র আখ্যা দিয়েছে। সিপিএম নেতা হরিপদ দাস বলেন, এগুলো জনগণকে বিভ্রান্ত করতে করা হচ্ছে। নির্বাচনে সরকার যেগুলো আশ্বাস দিয়েছিল তার কিছুই পূরণ হয়নি। তাই মানুষ এর দৃষ্টিকে ঘোরানোর চেষ্টা চলছে। মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব দুর্নীতির প্রসঙ্গ তুলে পূর্ণাঙ্গ তদন্ত করার কথা বলেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.