ঔষধি গাছের বিষয়ে ভারত ও পেরুর মধ্যে সহযোগিতার লক্ষ্যে সমঝোতাপত্র স্বাক্ষরের প্রস্তাবে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার অনুমোদন

Spread the article

প্রধানমন্ত্রী শ্রী নরেন্দ্র মোদীর পৌরহিত্যে আজ কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠকে আয়ুষ মন্ত্রকের ‘ন্যাশনাল মেডিসিন্যাল প্ল্যান্ট বোর্ড এবং পেরুর স্বাস্থ্য মন্ত্রকের ‘ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ হেলথ’ এর মধ্যে ঔষধি গাছের বিষয়ে সহযোগিতার লক্ষ্যে সমঝোতা পত্র স্বাক্ষরের প্রস্তাব অনুমোদিত হয়েছে।

দুটি দেশই জৈব বৈচিত্রে ভরপুর। উভয় দেশেই নানা ঔষধি গাছ আছে। যা চিরায়ত ঔষধ তৈরিতে ব্যবহৃত হয়। ভারত এবং পেরুর মধ্যে সৌহার্দপূর্ণ এবং সহযোগিতামূলক সম্পর্ক রয়েছে। প্রস্তাবিত চুক্তিটি দ্বিপাক্ষিক এই সম্পর্ককে আরো এগিয়ে নিয়ে যাবে। উভয় দেশের কাছেই যা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

এই চুক্তি স্বাক্ষর হবার সঙ্গে সঙ্গেই দুটি সংস্থা কাজ শুরু করবে। এই কাজ হবে স্বাক্ষরিত চুক্তি অনুসারে। এর জন্য অতিরিক্ত অর্থ বরাদ্দের প্রয়োজন হবে না। আয়ুষ মন্ত্রকের ‘ন্যাশনাল মেডিসিনাল প্ল্যান্ট বোর্ড’-এর জন্য যে বাজেট বরাদ্দ ও কর্মসূচি আছে, সেখান থেকেই গবেষণা, প্রশিক্ষণ, সম্মেলনের প্রয়োজনীয় অর্থ পাওয়া যাবে।

জৈব বৈচিত্রে ভরপুর ভারতে ৭হাজারের বেশি গাছ আছে, যেগুলি আয়ুর্বেদ, ইউনানি, সিদ্ধা, হোমিওপ্যাথি ঔষধের জন্য ব্যবহৃত হয়। পেরুও জৈব বৈচিত্রে ভরপুর। ল্যাটিন আমেরিকার এই দেশের নানা গাছ থেকে ঔষধ তৈরি করা হয়।

প্রাচীন যুগ থেকে দুটি দেশের এই রীতির বিষয়টি বিবেচনা করেই প্রস্তাবিত এই চুক্তিটির পরিকল্পনা করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *