সম্পাদকীয় প্রচ্ছদ নিবন্ধ মোহিত রায় শ্রীপর্ণা বন্দ্যোপাধ্যায় গল্প সিদ্ধার্থ সিংহ ……  আগাম ইন্দ্রাণী সমাদ্দার……  ভয় দেবদাস কুণ্ডু ……. অলীক আনন্দ কল্যান সেনগুপ্ত ……. ভয় অণুগল্প চুমকি চট্টোপাধ্যায় ……. মুন্সী ফ্যমিলির লকডাউন সোমনাথ বেনিয়া …….. ঘা রম্যরচনা দর্পণা রায় ….. প্রশ্ন: বামাতি ও জামাতির তুলনা করো  বিশেষ রচনা ডা. শিবাজী ভট্টাচার্য…..Read More →

স্যার, আপনাকে অভিক রায় ডেকেছেন। ফ্লোরের পিয়ন এসে দাঁড়ায়। কে অভিক রায়? অনির্বাণের আজ প্রথম দিন নতুন অফিসে, ড্রয়িংহলে বসে একটু নিজের বইপত্র গুছিয়ে রাখছে, এমন সময় পিয়ন এসেছে। আজ্ঞে সামনের চেম্বারে উনি বসেন। মালিকের ভাগ্নে। গেল তাহলে। এনার কাছেও কি ইন্টারভিউ দিতে হবে? ভিতরটা গুড় গুড় করে ওঠে। কেমনRead More →

ক্ষুধার ভেতর জন্ম নেয়  আরও একটি ক্ষুধার শরীর।  আলোর মুখোশ ভেদ করে  যেটুকু আলো আসে,  তাতে পড়ে না কোন প্রতিবিম্ব।  নগ্ন উৎসের কাছে যে ফিরে আসে  রামধনুর কোরিওগ্রাফি তার অজানা।  প্রাসাদের বাইরে নক্‌শার যে কারুকাজ ভেতরেও কি আছে সুদৃশ্য সিংহাসন? ক্ষুধার ভেতর ডুবে যাচ্ছে একটা করে পৃথিবী… মহাপৃথিবীর যাত্রী হয়েRead More →

সব কথা এখন বলা কঠিন। মনে নেই । ঐ যে আমার দেশের বাড়ির নদীটা। ওটা পেরিয়ে চলে যেতাম মায়াপুরে, একদিন । ঘাটে নেমে চষা মাঠের মধ্যে দিয়ে,  এর-ওর ক্ষেত থেকে মটর, ছোলা তুলে খেতে খেতে । তখন সবে তো সেভেনে । দাদার সাইকেলটা চালাই মানুষটা তাঁতঘরে থাকলে,  তাও জোর মহানির্বান মঠ পর্যন্তRead More →

প্রজারা সন্ত্রস্ত হবে ভেবে গোপন করেছি নথি  ক্ষমতার বাম হস্তে  থামিয়েছি সংক্রমণ  দক্ষিনে কর্তব্য, দিক নির্দেশ ; রক্তের বিরুদ্ধ স্বভাব, ঝড়ের দমকা বুঝিনিতো  # সত্য আড়াল করি রোমাঞ্চকর —  আলোর অভাবে ধর্ম নষ্ট, তাচ্ছিল্য হাসেন ঈশ্বর  # সংখ্যালঘু রক্ষা পেলে রক্ষা হয় রাজধর্ম  ফিসফিস গোপনীয় রহস্য গাভীন  নষ্ট দিন যাপনেরRead More →

একটি পাখির ডাক ও ভোর কোলাহলে দিনের পতন শুরু  দূরে শ্মশানে শব, নীরবতা  আগুনের চিৎকার ওড়ে বিষণ্ণ তুলো আর মহাকালের আস্তানা। তোমার চোখের পাতায় ঘুম  কুহকের রোদ,  জুঁই ফুল । তবু পাখির ডাক — নদীর স্রোত  ক্ষয়ে যাওয়া প্রত্ন পাথর মৃত জীবজগৎ আমাদের জীবনেরও…অবিরত পাখি ডাকে।  রথীন পার্থ মণ্ডলRead More →

১. এমন আরোগ্য নিকেতন যার মর্গের আকার বারোগুণ বড়ো আকাশের থেকে… এমন আকাশ যার আয়ুর সকাল সীমায়িত কলঙ্কের মতো… এমন কলঙ্ক যাকে মড়কের সঙ্গে যুঝে যেতে হয় আজীবন… আজীবন মানে কোনও জীবন নয় যে তুমিও লাল বেলুন উড়িয়ে বসে থাকবে  হাওয়ার অপেক্ষায়। ২. ফুলে ফেঁপে ঢোল হয়ে যাওয়া মেঘ জায়গায়Read More →

“ভাগ্যচক্রের পরিবর্তনের দ্বারা একদিন না একদিন ইংরেজকে এই ভারত সাম্রাজ্য ত্যাগ করে যেতে হবে। কিন্তু কোন ভারতবর্ষকে সে পিছনে ত্যাগ করে যাবে? কী লক্ষ্মীছাড়া দীনতার আবর্জনাকে। একাধিক শতাব্দীর শাসনধারা যখন শুষ্ক হয়ে যাবে, তখন এ কী বিস্তীর্ণ পঙ্কশয্যা দুর্বিষহ নিষ্ফলতাকে বহন করতে থাকবে।” যখন আশি বছরের জন্মদিনে (১৯৪১) বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথRead More →

ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি (CPI)-র মতে দল প্রতিষ্টিত হয়েছিল ১৯২৫ সালের ২৬ ডিসেম্বর কানপুর পার্টি কনফারেন্সের সময়। কিন্তু সিপিআই ভেঙে গঠিত দল ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি (মার্ক্সবাদী) CPI(M) মনে করে ১৯২০ সালের ১৭ অক্টোবর Communist International-এর দ্বিতীয় কংগ্রেসের পর Turkestan Autonomous Soviet Socialist Republic-এর তাসখন্দে সিপিআই প্রতিষ্ঠিত হয়। সেই অনুযায়ী ২০১৯-এই সিপিএম কমিউনিস্ট পার্টির শতবর্ষ পালনের কর্মসূচীRead More →

অগ্নি থেকে জন্ম হয়েছিল সেই নারীর, শৈশব কৈশোর পেরিয়ে একেবারে যৌবনেই পৃথিবীদর্শন নারী দ্রৌপদীর। আগুন যেমন সবকিছুকে পুড়িয়ে ছাই করে দেয়, আবার তেমনই আগুনে দগ্ধ হয়েই সবকিছু বিশুদ্ধ হয়ে ওঠে। দ্রৌপদীও ছিল একেবারে বিশুদ্ধ, তথাকথিত ধ্যানধারণা, শিক্ষণ, রীতিনীতি, চালচলন কোনোকিছুরই প্রভাব ছিল না তার ওপর। তাই সে একাধারে যেমন সমস্তRead More →