২রা এপ্রিল দিনটি সারা পৃথিবীতে পালন করা হয় ‘অটিজম সচেতনতা দিবস’ হিসেবে।

অটিজম কোনো মানসিক প্রতিবন্ধকতা নয়। পূর্ণতা।

কারণ এই সব মানুষরা আমাদের মতো চার দেওয়ালের সীমানাকে জীবনের সার সত্য ভেবে মোটা মোটা গরাদ দেওয়া জানলার ফাঁকে কোনোক্রমে চোখ রেখে বাইরে ওই একফালি নীল রুমালের মতো আকাশটাকে দ‍্যাখে না। এদের চোখে জন্ম থেকেই জটিলতার পরকলা তুলে দেওয়া হয় না… যাতে বিছিয়ে আছে অসূয়া, লোভ, অকৃতজ্ঞতা, অপরের অনিষ্টচিন্তা, প্রবঞ্চনা ইত্যাদি অসংখ্য ‘কালো’ বিন্দু।

এরা জীবনকে যাপনকে চিনে নেয় শুধুই ‘আলো’টুকুকে সার করে। তাই এদের মনের ঘরে কোনো দেয়াল নেই, ছাদ নেই, দরজা-জানলা কিচ্ছু নেই। শুধু অসীম আকাশ আছে। চোখের ওপারে কূল দেখা যায় না… এমন সমুদ্র আছে।

আকাশ আর সমুদ্র। দুটিরই রং নীল। এই অনন্ত নীলিমায় এরা রামধনু আঁকে জীবনভর। সে রামধনু আমরা যারা সাধারণ মানুষ হয়েও দেখতে পাই, তারা ভাগ্যবান। যারা পাই না… তাদের অশেষ দুর্ভাগ্য।

আজকের রং নীল। নীল রং প্রতীকী। নীল মানে উন্মুক্ততা, উদারতা, মুক্তি, কল্পনা, প্রসারতা আর সংবেদনশীলতা। এই নীল রং একই সঙ্গে আবার নির্দেশ করে গভীরতা, আস্থা, একাগ্রতা, স্থৈর্য এবং বোধ। অর্থাৎ আত্মার রং। শুদ্ধ , শুভ এবং নির্মল।

আবিলতা আমাদের স্বপ্ন দেখার ইচ্ছেগুলো নির্মূল করে দিয়েছে। তাই হয়তো এই সব অমৃতের সন্তানদের হাত ধরে আমাদের অন্ধ এবং বন্ধ চোখ স্বপ্ন দেখতে শিখতে পারে, তেমন তীব্র ইচ্ছে থাকলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.