নিজেদের ভিডিয়োয় পর্দাফাঁস পাকের? ‘ডুবোজাহাজ’ আটকানোর দাবি নিয়ে প্রশ্ন ভারতের

পাকিস্তানি ভূখণ্ডে ঢোকার আগে ভারতীয় ডুবোজাহাজ আটকে দেওয়ার দাবি করেছিল ইসলামাবাদ। সেই দাবি উড়িয়ে দিল ভারত। বরং আদৌও সেটি ডুবোজাহাজ ছিল কিনা, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলা হল। সেইসঙ্গে ভারতের তরফে জানানো হল, আন্তর্জাতিক জলসীমাতেই ছিল ওই জলযান। যেটিকে ডুবোজাহাজ বলে দাবি করছে পাকিস্তান।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে ভারতীয় আধিকারিকরা জানিয়েছেন, যে জলযানটি পাকিস্তানি নৌবাহিনী চিহ্নিত করেছে বলে দাবি করা হচ্ছে, তা করাচি থেকে ১৪০ থেকে ১৫০ নটিকাল মাইল দূরে ছিল বলে মনে করা হচ্ছে। পাকিস্তানি সেনার প্রকাশিত ভিডিয়োর জিপিএস সংক্রান্ত তথ্য থেকেই সেটা বোঝা যাচ্ছে। সেখানে নিয়ম অনুযায়ী, কোনও দেশের তীর থেকে ১২ নটিকাল মাইল পর্যন্ত এলাকাকে সংশ্লিষ্ট দেশের ভূখণ্ড হিসেবে ধরা হয়। সেই সীমা পেরিয়ে গেলেই কোনও জাহাজ আন্তর্জাতিক জলসীমায় আছে বলে বিবেচনা করা হবে। পাকিস্তানের যে জলযানের বিষয়ে দাবি করছে, তা তো সেই সীমানার বহু দূরে আছে। পাশাপাশি পাকিস্তানের তরফে যে ভিডিয়ো প্রকাশ করা হয়েছে, তা আদৌও সত্য কিনা, তা নিয়ে নিশ্চিত নয় বলে জানিয়েছেন আধিকারিকরা।

এর আগে, পাকিস্তানের সেনার তরফে বিবৃতি প্রকাশ করে দাবি করা হয়, গত ১৬ অক্টোবর আরব সাগরে একটি ভারতীয় ডুবোজাহাজকে চিহ্নিত করা হয়েছিল। যা পাকিস্তানের জলসীমায় প্রবেশের চেষ্টা করছিল বলে দাবি করা হয়। বিবৃতিতে বলা হয়, ‘তৃতীয়বার এমন ঘটনা ঘটল, যখন আগেভাগেই ভারতীয় ডুবোজাহাজকে চিহ্নিত করে ফেলেছে পাকিস্তানি নৌবাহিনীর মেরিটাইম প্যাট্রোল এয়ারক্র্যাফট। পাকিস্তানি নৌবাহিনী কড়া নজরদারি বজায় রেখেছে।

যদিও ভারতের তরফে বিষয়টি নিয়ে সরকারিভাবে কোনও মন্তব্য করা হয়নি। তবে ওই আধিকারিকরা কার্যত পাকিস্তানের দাবি খারিজ করে দিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.