৫০০ টাকা চাঁদাতে মন ভরেনি পুজো উদ্যোক্তাদের, পরিবারের উপর চড়াও, মারধর

গুনে গুনে ৫০০ টাকা চাঁদা দিতে চেয়েছিল পরিবার। কিন্তু তাতেও সন্তুষ্ট হয়নি পুজো উদ্যোক্তারা। আর তার জেরে একেবারে পরিবারের উপর চড়াও হওয়ার অভিযোগ উঠেছে পুজো কমিটিু উদ্যোক্তাদের বিরুদ্ধে। দক্ষিণ দমদম পুরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের দমদম ক্যান্টনমেন্টের গড়ুই এলাকার ঘটনা। এদিকে গোটা ঘটনাকে ঘিরে গাড়ুই পশ্চিমপাড়া সার্বজনীন দুর্গোৎসব কমিটির একাধিক সদস্যের বিরুদ্ধে হামলার অভিযোগ উঠেছে। দমদম থানাতেও অভিযোগ দায়ের করতে গিয়েছিলেন আক্রান্ত পরিবারের সদস্যরা। কিন্ত জেনারেল ডায়েরি করে রেখে দিয়েছে পুলিশ। এমনটাই অভিযোগ পরিবারের।ট্রেন্ডিং স্টোরিজ

আক্রান্ত পরিবারের সদস্য পেশায় ইলেকট্রিশিয়ান উৎপলেন্দু দাস ও তার পরিবারের অভিযোগ প্রথমে একটি ফাঁকা বিল দেওয়া হয়েছিল পরিবারকে। এরপর পরিবারের তরপে ৫০০ টাকা চাঁদা দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু তাতেও সন্তুষ্ট হয়নি পুজো কমিটির সদস্যরা। পুজো কমিটির কয়েকজন যুবক রবিবার আচমকাই উৎপলেন্দু দাস ও ভাই বিমলেন্দু দাসের উপর চড়াও হয়। প্রথমে বাড়িতে ঢুকেই অকথ্য় ভাষায় গালিগালাজ করা হয় বলে অভিযোগ। এরপরই শুরু হয় মারধর। পরিবারের একজন সদস্য গোটা ঘটনার ফুটেজ মোবাইলে তুলে রাখেন। এদিকে গোটা ঘটনাকে ঘিরে এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। পরিবারের সদস্যদের দাবি, বুকে, পিঠে ঘুষি মারা হয়েছে। মারধরের সময় গলাও টিপে ধরা হয়েছিল। এদিকে পুজো উদ্যোক্তারা গোটা ঘটনা নিয়ে মুখ খুলতে চাননি। 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.