ধারাবাহিকতায় অভাব, সকল প্রাপ্তবয়স্কের টিকাকরণে লাগবে আরও ৬ মাস: পরিসংখ্যান

টিকা পাওয়ার যোগ্য এমন প্রতি ৪ জন ভারতীয়ের মধ্যে ৩ জন অন্তত ১টি করে ডোজ পেয়েছেন। এর অর্থ দেশের ৭৫% ব্যক্তিই অন্তত একটি করে ডোজ নিয়ে ফেলেছেন। তবে বর্তমানে যে গতিতে টিকাকরণ হচ্ছে, তা বজায় থাকলে আগামী বছর এপ্রিলের মধ্যে দেশের সকল প্রাপ্তবয়স্করা টিকা পাবেন। এমনই উঠে এসেছে মিন্টের পরিসংখ্যানে।

বৃহস্পতিবারের মোট করোনা ডোজের সংখ্যা প্রায় ১০০ কোটি পৌঁছোয়। বিশ্বজুড়ে এর আগে শুধুমাত্র চিন এই বিপুল টিকাকরণের মাইলস্টোন ছুঁতে পেরেছে। কেন্দ্রের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, দেশের ৪৪.৩% প্রাপ্তবয়স্কদের আংশিক টিকাকরণ হয়েছে। বাকি ৩১% সম্পূর্ণ টিকাপ্রাপ্ত। ১০০ কোটির মাইলফলক ছুঁয়ে ফেলার জন্য এদিন দেশবাসীকে অভিনন্দন জানান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। টুইটে চিকিত্সক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মীদের ধন্যবাদ জানান তিনি। ‘ইতিহাস গড়ল ভারত,’ টুইটে লেখেন তিনি।

বৃহস্পতিবার ডঃ রাম মনোহর লোহিয়া হাসপাতালের টিকা কেন্দ্র পরিদর্শনে যান প্রধানমন্ত্রী।

তবে এরই মধ্যে আগের তুলনায় কিছুটা কমেছে দৈনিক টিকাকরণের সংখ্যা। আগের মতো দিনে ১ কোটি করে টিকাকরণের গতি নেই। ওয়াকিবহাল মহল জানাচ্ছে, বর্ষা, উত্সবের মরসুম ইত্যাদি কারণে কিছুটা কমেছে টিকাকরণের সংখ্যা। বুধবার টিকা নিয়েছেন ৪৮.০৮ লক্ষেরও বেশি মানুষ। মিন্টের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, দেশে টিকাকরণের গতি এক থাকছে না। ৬০ কোটি থেকে ৭০ কোটি হতে ১৩ দিন, ৭০ কোটি থেকে ৮০ কোটি হতে ১১ দিন, ৮০ কোটি থেকে ৯০ কোটি হতে ১৪ দিন সময় লেগেছিল। যা ১০০ কোটিতে পৌঁছাতে সময় লেগেছে ১৯ দিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.