হিমালয়ে পরিকাঠামো বাড়াচ্ছে চিন! লাদাখ সীমান্তে PLA-র গতিবিধি ফাঁস পেন্টাগনের

লাদাখ সীমান্তে পরিকাঠামো বাড়াচ্ছে চিন। এমনই দাবি কার হল এক মার্কিন রিপোর্টে। পেন্টাগনের একটি রিপোর্টে বলা হয়েছে যে ২০২০ সালে ভারতের সাথে সীমান্ত অচলাবস্থার সময় চিন পশ্চিম হিমালয় প্রত্যন্ত অঞ্চলে একটি ফাইবার অপটিক নেটওয়ার্ক স্থাপন করেছিল। এতে আরও বলা হয়েছে যে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর সীমান্তে চিনের সামরিক বাহিনী উল্লেখযোগ্য শক্তি বৃদ্ধি ঘটিয়েছে এবং অগ্রবর্তী ফরোয়ার্ড পোজিশনে সেনা মোতায়েন করা হয়েছে।

রিপোর্টটিতে লেখা, ‘২০২০ সালে গণপ্রজাতন্ত্রী চিন এবং ভারতের মধ্যে সীমান্ত স্থবিরতার উচ্চতায় পিপলস লিবারেশন আর্মি পশ্চিম হিমালয়ের প্রত্যন্ত অঞ্চলে একটি ফাইবার অপটিক নেটওয়ার্ক স্থাপন করেছে যাতে দ্রুত যোগাযোগ এবং বিদেশী বাধা থেকে সুরক্ষা বৃদ্ধি পায়।’

রিপোর্টে বলা হয়, ‘২০২০ সালে চিনা সেনাবাহিনী সাম্প্রতিক বছরগুলির মধ্যে সবথেকে দ্রুত গতিতে প্রশিক্ষণ দিয়েছে নিজের জওয়ানদের। পাশাপাশি সীমান্তে বিভিন্ন সরঞ্জামও মোতায়েন করেছে চিন।’ এটি আরও বলেছে যে চিন তার প্রতিবেশী, বিশেষ করে ভারতের সাথে আগ্রাসী ও জবরদস্তিমূলক আচরণ করছে।

উল্লেখ্য, পেন্টাগন নিয়মিতভাবে মার্কিন কংগ্রেসকে পূর্ব লাদাখে ভারত-চিন সীমান্ত স্থবিরতা সহ বিভিন্ন বিষয়ে রিপোর্ট করে। গত বছরের জুনে দুই সামরিক বাহিনীর মধ্যে সংঘর্ষের পর থেকেই এই রিপোর্ট পেশের ধারাবাহিকতা শুরু হয়েছিল। গালওয়ানের সেই ঘটনায় উভয় দেশের সেনাই হতাহত হয়েছিলেন এবং সমস্যা সমাধানের জন্য বেশ কয়েক দফা আলোচনা করেছে দুই দেশের সেনা। কিন্তু কোনও উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি হয়নি সমস্যা মেটানোর ক্ষেত্রে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.