মাস গড়াতে চলল। রাজ্যের সব দলের প্রার্থী ঘোষণা হয়েছে। প্রচার চলছে পুরোদমে। এক ইঞ্চি জমি ছাড়তে নারজ কেউই৷ দেশজুড়ে গেরুয়া শিবিরের দমকা হওয়া। রাজ্যের ৪০ টি আসনে প্রার্থী তালিকা ঘোষনা করলে বর্ধমান-দুর্গাপুর এবং পুরুলিয়া আসনে প্রার্থী ঘোষনা করেনি বিজেপি। আর তাই বিরেধীরা কটাক্ষ শুরু করেছে। কাকে করছেন প্রার্থী তা নিয়ে বিস্তর জলঘোলা।  মুকুল ঘনিষ্ঠ, না সঙ্ঘ ঘনিষ্ঠ তা নিয়েও জল্পনার শেষ নেই।

এই বিতর্কের মধ্যে শোনা যাচ্ছে শিল্পশহরের ‘জামাই’ কে প্রার্থী করতে চলছে গেরুয়া শিবির। তিনি অতীতে এরাজ্যের প্রার্থী হয়ে বিপুল ভোটে জয়ী হয়েছেন। কর্মদক্ষতা যথেষ্ট ভাল। তেমনই অমিত শাহ ও নরেন্দ্র মোদীর খুবই কাছের লোক। আর তাই বর্ধমান-দুর্গাপুরের মতো শিল্প-কৃষি সংমিশ্রিত আসনটি মোটেই হাত ছাড়া করতে নারাজ বিজেপি। শিল্পশহরে একের পর এক রাষ্ট্রায়ত্ত কারখানা বন্ধে অন্ধকার নেমে এসেছে। তার ওপর দুর্গাপুর ব্যারেজে পলি জমে নাবত্য কমে যাওয়ায় কৃষিতেও মাথায় হাত চাষীদের। প্রাধানমন্ত্রী স্বয়ং বাংলার এই শিল্পাঞ্চলের উন্নয়নে উদ্যোগী হয়েছিলেন। গ্যাস লাইনের গ্রিড তৈরী যার জ্বলন্ত উদাহরন। আর তাই, উন্নয়নকে গতিশীল করতে শিল্পশহর দুর্গাপুরের ‘জমাই’ সুরিন্দর সিং আলুয়ালিয়াকে কি প্রার্থী করেতে চলেছে বিজেপি?

সুরিন্দর সিং আলুয়ালিয়াকে প্রার্থী করলে তৃৃৃৃণমূলের ভোটেও থাবা বসাতে পারে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহলে। তবে, এই কেন্দ্রে বিজেপির কাঁকসা -পানাগড় ও শিল্পশহরের মেনগেট এলাকায় ভালো সংগঠন রয়েছে। অন্যত্র সেভাবে সংগঠন নেই বললেই চলে। তবে, তৃণমূলের গোষ্ঠীকোন্দলে শিকে ছিঁড়তে পারে বলে মনে করছে বিজেপি। আর তাই জয়ের আশায় যুযুধান গেরুয়া শিবির।
তাই প্রার্থী বাছাইয়ে এত বিলম্ব।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.