এক হাতে কোরান, অন্য হাতে কম্পিউটার! উত্তরাখণ্ডে নতুন মাদ্রাসা খুলছে আরএসএস

উত্তরাখণ্ডে মাদ্রাসা খুলতে চলেছে আরএসএসের সংখ্যালঘু সেল ‘মুসলিম রাষ্ট্রীয় মঞ্চ।(MRM)’ দেশে এখনও পর্যন্ত পাঁচটা মাদ্রাসা খুলেছে এমআরএম। উত্তরাখণ্ডে এই প্রথম। আগামী কয়েক মাসের মধ্যে দেহরাদূনে খুলবে এই মাদ্রাসা

সংগঠনের তরফে জানানো হয়েছে, মাদ্রাসা সম্পর্কে বহু মানুষের ভুল ধারণা রয়েছে। এমআরএমের প্রতিটি মাদ্রাসায় আধুনিক শিক্ষা দেওয়া হয় ছাত্রদের। শুধু ছাত্র নয়, উত্তরাখণ্ডের এই নতুন মাদ্রাসায় ছাত্রীদেরও অ্যাডমিশন দেওয়া হবে বলে জানা গেছে। সংগঠনের তরফে আরও বলা হয়েছে, শুধুমাত্র সিলেবাস ভিত্তিক পাঠ নয়, এই মাদ্রাসায় সাধারণ জ্ঞান, কম্পিউটার ও প্রযুক্তিগত বিদ্যাতেও জরুরি পাঠ দেওয়া হবে পড়ুয়াদের।

এমআরএম-এর রাজ্য সংগঠনের প্রধান সীমা জাভেদ জানিয়েছেন, জমি কেনা হয়ে গেছে। মাদ্রাসা তৈরির কাজ শুরু হবে কিছুদিনের মধ্যেই। সিলেবাসে কী খী পাঠক্রম থাকবে সেটা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ইচ্ছামতোই সাজানো হয়েছে। তিনি চান, পড়ুয়াদের এক হাতে থাকবে কোরান, অন্য হাতে কম্পিউটার।

এর আগে উত্তরপ্রদেশে পাঁচটি মাদ্রাসা চৈরি করেছিল এমআরএম। মোরাদাবাদ, হাপুর, বুলন্দশহরে একটি করে এবং মুজফফরনগরে দু’টি। এমআরএম-এর জাতীয় উপ-সাংগঠনিক সম্পাদক তুষার কান্ত হিন্দুস্তানির কথায়, ‘‘আমরা চাই না পড়ুয়ারা শুধুমাত্র কাজী, কারিস, ইমাম, মৌলানা, মুফতি তৈরি না হয়। বরং তাদের মধ্যে থেকেও ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, অধ্যাপক, বিজ্ঞানী তৈরি হোক।’’ শুধু মুসলিম নয়, যে কোনও ধর্মের ছাত্রছাত্রীরাই এই মাদ্রাসায় ভর্তি হতে পারবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.