গভীর রাতে বিজেপির রাজ্য নেতাদের তুলে নিয়ে গেল পুলিশ, প্রতিবাদে বিক্ষোভ চন্ডিপুরে থানায়

ভোটের কাজ তদারকির জন্য এসেছিলেন বিজেপির দুই রাজ্য নেতা। নিরাপত্তার কথা ভেবে উঠেছিলেন থানা সংলগ্ন গেস্টউসে।

কিন্ত নিরাপত্তা দূরে থাক গভীর রাতে পুলিশই তাঁদের তুলে নিয়ে গেল থানায়। প্রতিবাদে ভোর থেকেই থানায় ক্ষোভে ফেটে পড়লেন বিজেপি কর্মী সমর্থকরা।

জানাগেছে, চন্ডিপুরে সপ্তর্ষি গেস্ট হাউস উঠেছিলেন বিজেপির রাজ্য কমিটির সম্পাদক রাজীব ভৌমিক এবং রাজ্য কমিটির সদস্য শ্যামচাঁদ ঘোষ। ভোটের কাজ তদারকির জন্য তাঁরা এলাকায় এসেছেন। গতকাল রাত আড়াইটা নাগাদ গেষ্টহাউস থেকে থানায় তুলে এনে তাদের বসিয়ে রাখা হয় বলে বিজেপির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। কি কারন জানতে চাইলে পুলিশ তার সদুত্তর দিতে পারেনি।

রাজ্য কমিটির সম্পাদক রাজীব ভৌমিক বলেন, ১২ মে এই এলাকার লোকসভা নির্বাচন রয়েছে, নির্বাচনী প্রচারের জন্য আমরা এখানে এসেছি। যেহেতু এলাকাটি থানা সংলগ্ন তাই এই গেস্ট হাউসটিকে আমরা বেছেছিলাম। আর সেখানেই রাত আড়াইটার সময় আমাদেরকে থানায় নিয়ে গিয়ে বসিয়ে রাখা হল। যা যা তথ্য দেখতে চেয়েছেন তাও আমরা দেখিয়ে পুলিশকে সম্পূর্ণ সহযোগিতা করেছি। থানায় নিয়ে আসার এর কারণ কী আমরা বুঝে উঠতে পারছি না।

নেতৃত্বকে থানায় বসিয়ে রাখার কথা জানাজানি হতেই উত্তজনা ছড়ায় স্থানীয় কর্মী ও নেতৃত্বের মধ্যে। ভোর থেকে এলাকার বহু বিজেপি কর্মী নেতা সর্মথকরা চন্ডীপুর থানায় এসে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের সংখ্যাও ক্রমশ বাড়তে থাকে। এর পরিপ্রেক্ষিতে রাজীব ভৌমিক পুলিশকে জানান, এরপরে যদি কোনো বড় গন্ডগোলের আকার নেয় এর জন্য আমরা দায়ী থাকব না। এর জন্য পুলিশ প্রশাসন দায়ী থাকবে। এরপরই পুলিশ সাড়ে আটটা নাগাদ তাদের ছেড়ে দেয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.