সরকারি বাসে, বাংলা আবাসে মুখ্যমন্ত্রীর ছবি দেওয়া বিজ্ঞাপন, নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ বিজেপির

দশদিন আগে নির্বাচন বিধি লাগু হয়েছে। তারপরও দেদার টাঙানোর রয়েছে সরকারি প্রকল্পের হোর্ডিং। কোথাও আবার মুখ্যমন্ত্রীর ছবিসহ। সরকারি বাসের পিছনে বড় বড় হরপে লেখা কন্যাশ্রীর হোর্ডিং। আবার গ্রামাঞ্চলে বাংলা আবাস যোজনার বাড়িতে মুখ্যমন্ত্রীর ছবিসহ হোর্ডিং। বুধবার নির্বাচন দফতরে ওইসব হোর্ডিং খোলার দাবিতে অভিযোগ দায়ের করল কাঁকসা ব্লক বিজেপি নেতৃত্ব। প্রশ্ন তুলছে খোদ জেলায় নির্বাচন আধিকারিকদের ভূমিকা নিয়ে। 

 
উল্লেখ্য, দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন সংস্থার সদর কার্যালয় দুর্গাপুর। প্রায় সাড়ে চার’শ বাস চলে রাজ্যের বিভিন্ন রুটে। ওইসব বাসে রাজ্যের বিভিন্ন প্রকল্পের হোর্ডিং টাঙ্গানো হয়েছিল। তাতে মুখ্যমন্ত্রীর ছবিও রয়েছে। বুধবার সেসব নজরে পড়তেই সরব হয় বিজেপি। আবার কাঁকসার বিস্তীর্ণ জঙ্গলমহলে বাংলা আবাস যোজনায় বাড়ি দেওয়া হয়েছে। অভিযোগ, ওইসব বাড়িতে বাংলা আবাস যোজনার বড় বড় হোর্ডিংয়ে মুখ্যমন্ত্রীর ছবিও রয়েছে। ওইসব বাড়ির ও বাসের ছবিসহ কাঁকসা ব্লক নির্বাচন আধিকারিকের কাছে অভিযোগ দায়ের করে স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্ব।

বিজেপির পূর্ব বর্ধমান জেলা সম্পাদক রমন শর্মা জানান,” জাতীয় সড়কের ওপর সরকারি বাসগুলো ছুটছে। তার পিছনে বড় বড় হোর্ডিংগুলো রয়েছে। অথচ নির্বাচন দফতরের আধিকারিক ও কর্মীদের নজরে পড়ল না। ওইসব হোর্ডিং ভোটারদের প্রভাবিত করবে। তাই হোর্ডিংগুলো খোলার অর্জি জানিয়েছি।”

যদিও স্থানীয় তৃণমূল নেতা সমীর বিশ্বাস জানান,
“বিষয়টি নির্বাচন কমিশনের বিবেচনাধীন, তাদের এক্তিয়ারে। দলের কোন ভূমিকা নেই ওইসব হোর্ডিং টাঙ্গানোয়।”

দুর্গাপুর মহকুমা নির্বাচন আধিকারিক অনির্বান কোলে জানান,” সুনির্দিষ্ট অভিযোগ এখনও পাইনি। অভিযোগ পেলে হোর্ডিংগুলি খুলে দেওয়া হবে।” 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.