পুলবামা ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে অবস্থা উত্তপ্ত রয়েছে। ভারত এয়ার স্ট্রাইক করার পরেও পাকিস্থান সীমাতে সিজ ফায়ার উলঙ্ঘন করছে। এই নিয়ে চর্চা চরমে রয়েছে। কিছুজন নির্ণায়ক যুদ্ধ চাইছে তো আবার কিছুজন বলছে ইমরান খান ভালো মানুষ শান্তি চাই তাই মোদীর উচিত শান্তি বাতা বরণ তৈরি করা। কিছুজন তো এই নিয়ে রাজনীতি শুরু করে দিয়েছেন। কেজরিওয়াল ও রাহুল গান্ধীর মতো নেতারা পাকিস্থানের ভাষায় কথা বলছেন এবং সেনার কাছে এয়ার স্ট্রাইকের প্রমান চাইছেন। সব মিলিয়ে সোশ্যাল মিডিয়া, রাজনৈতিক মহল সব স্থানেই চর্চা তুঙ্গে।

এই ইস্যুতেই বলিউডের অভিনেতা পরেশ রাওয়াল কেজরিওয়ালকে নিয়ে এমন মন্তব্য করেছেন যে বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে। আসলে একটা ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সেখানে বলা হয়েছে- ভারতে থাকা ইমরান খানের দালালরা শুধরে যাও নতুবা দেশের জনগণ তোমাদের রাস্তায় নামিয়ে দেবে। এই ভিডিওকে মেনশন করে পরেশ রাওয়াল বলেছেন- “কেজরিওয়াল জুতোরও যোগ্য নয়, যদি জুতো কেজরিওয়ালকে ছুঁয়ে নেয় তাহলে জুতোটা এত নোংরা হয়ে যাবে যে সেটা আর পায়ে নেওয়া যাবে না।”

পরেশ রাওয়ালের এই মন্তব্যের পর কেজরিওয়ালের সমর্থনকারীরা চটে উঠেছে। তবে শুধু পরেশ রাওয়াল নয়, বিজেপির তেজেন্দ্র সিং, সম্বিত পাত্র এই ইস্যুতে কেজরিওয়ালের মতো নেতাদের উপর আক্রমণ করেছেন। তেজেন্দ্র সিং বলেছেন, হিন্দুস্তানে থাকা ইমরান খানের দালালেরা সাবধান হয়ে যাওয়া নাহলে দেশের মানুষ তোমাদের পিটিয়ে মারবে। সম্বিত পাত্র বলেছেন, ‘আমরা কাদের সাথে লড়াই করবো পাকিস্থানের সাথে নাকি ঘরে বসে থাকা সাপের সাথে।’

প্রসঙ্গত জানিয়ে দি, ভারতের ভেতর থেকেই ভারতের বিরুদ্ধে যে আওয়াজ উঠছে তা নিয়ে আনন্দ প্রকাশ করেছে পাকিস্থান। পাকিস্থানের বিদেশমন্ত্রী বলেছেন, ভারত-পাক ইস্যুতে পুরো পাকিস্থান একজোট কিন্তু ভারতের রাজনৈতিক দলগুলি তাদের সরকার ও সেনার উপর প্রশ্ন তুলেছে। এটা পাকিস্থানের জন্য সবথেকে বড় জয় বলে উল্লেখ করেছেন পাকিস্থানের বিদেশমন্ত্রী শাহ মেহেমুদ খুরেশি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.