ঘুরে দাঁড়াচ্ছে দেশের অর্থনীতি, দ্বিতীয় সর্বোচ্চ জিএসটি আদায় কেন্দ্রের।

নভেম্বর মাসে জিএসটি (GST) বাবদ সরকারের ভাঁড়ারে এল ১.৩১ লক্ষ কোটি টাকা। ২০১৭ সালের ১ জুলাই জিএসটি কার্যকর হওয়ার পর থেকে এই পরিমাণ দ্বিতীয় সর্বাধিক। গত বছরের তুলনায় জিএসটি আদায় বেড়েছে ২৫ শতাংশ। এমনই তথ্য দিল কেন্দ্র।

করোনা পরিস্থিতিতে কর্মসংস্থানে চাপ পড়েছিল, কমছিল আয়। তবে ফের ঘুরে দাঁড়াচ্ছে অর্থনীতি। আর এর মধ্যেই সর কার জানাল, নভেম্বর মাসে পণ্য ও পরিষেবা কর বা জিএসটি সংগ্রহের পরিমাণ বেড়েছে ২৫ শতাংশ(গত বছরের তুলনায়) । ২০২১ সালের শেষে এসে নভেম্বরে জিএসটি হিসাবে আদায় হল ১.৩১ লক্ষ কোটি টাকা। ভারতে জিএসটি কার্যকর হওয়ার পর থেকে এখনও পর্যন্ত এই পরিমাণ দ্বিতীয় সর্বাধিক। দেশের অর্থনীতি যে ঘুরে দাঁড়াচ্ছে, এই তথ্যই তারই প্রমাণ । বুধবার এমনই দাবি করেছে কেন্দ্রীয় অর্থ মন্ত্রক। তারা জানাল, এই নিয়ে পরপর পাঁচ মাসে ১ লক্ষ কোটি টাকার উপর জিএসটি আদায় করা হল।

উল্লেখ্য, গত জুলাই-সেপ্টেম্বরে ভারতের জি ডিপি বেড়েছে ৮.৪ শতাংশ। করোনার ফাঁস কাটিয়ে উঠে আস্তে আস্তে ছন্দে ফিরছে অর্থনীতি। বুধবার কেন্দ্রীয় অর্থ মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, নভেম্বরেই জিএসটি আদায় হয়েছে ১.৩১ লক্ষ কোটি টাকা। যা জিএসটি নীতি চালুর পর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পরোক্ষ কর আদায়।

কেন্দ্রীয় অর্থ মন্ত্রক সূত্রে খবর, গত মাসে কেন্দ্রীয় জিএসটি সংগ্রহ হয়েছে ২৩ হাজার ৯৭৮ কোটি টাকা। রাজ্য জিএসটি থেকে এসেছে ৩১ হাজার ১২৭ কোটি টাকা। তাছাড়া সেস বাবদ মিলেছে ৯৬০৬ কোটি টাকা। সব মিলিয়ে যে পরিসংখ্যান, তাতে দেখা যাচ্ছে, গত বছরের একই সময়ের চেয়ে এ বছরের সংশ্লিষ্ট সময়ে জিএসটি মিলেছে ২৫ শতাংশ বেশি। তাছাড়াও ২০১৯ সালের নভেম্বর মাসের সঙ্গে তুলনা করলে ২৭ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে পরোক্ষ কর আদায়। অর্থাৎ, ফের যে ছন্দে ফিরছে দেশের অর্থনীতি, এই পরিসংখ্যান তারই প্রমাণ বলে দাবি কেন্দ্রীয় সরকারের।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.