ভোটের সময় কেউ ভয় দেখালে তার নাম লিখে রাখুন৷ পরে সেই নাম স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকে পাঠিয়ে দেওয়ার পরামর্শ দিয়ে গেলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংহ। তাঁর বক্তব্য ভোট মিটলে তিনি সে সব দেখে নেবেন।

শুক্রবার রাজ্যের তিন জায়গায় নির্বাচনী সভা করেন রাজনাথ। দুপুরে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার কাঁথি লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী দেবাশিষ সামন্তের সমর্থনে রামনগরে প্রথমে সভা করেন রাজনাথ সিংহ। এদিন ওই সভাতেই বিজেপি কর্মীদের প্রতি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দাওয়াই, “যদি ভোট না দিতে ধমক দেয়, ভয় দেখায় তবে তার নাম লিখে রাখুন। সেই নাম স্থানীয় নেতাদের দেবেন। সেই নামের তালিকা তাঁরা আমার কাছে পৌঁছে দেবে। ভোটের পরে তাদের আমরা দেখে নেব।”

রাজনাথের কথায়, ‘‘গুন্ডাগিরি করে মানুষকে ভোট দিতে দেওয়া হয়নি। বিজেপি এর জবাব দেবে। এক্ষেত্রে কোনও দলের নাম অবশ্য তিনি করেননি। মা মাটি মানুষ কিছুই এখন সুরক্ষিত নয়। বিজেপিই সেই সুরক্ষা দিতে পারে। তৃণমূলের পায়ের তলায় মাটি নেই।”

তাঁর দাবি, পাঁচ দফার ভোটে রাজ্যের প্রতিটি আসনই যে বিজেপি পাবে, তা তৃণমূল বুঝে গিয়েছে। তাই কেন্দ্রীয় বাহিনী নিয়ে ওদের এত সমস্যা। তবে পরবর্তী নির্বাচনে আরও কেন্দ্রীয় বাহিনী আসবে।

এ বিষয়ে রামনগর-১ পঞ্চায়েত সমিতির সহ-সভাপতি তথা ব্লক তৃণমূলের সভাপতি নিতাই চরণ সার বলেন, “উনি ভালো করেই জানেন রাজ্যের পরিস্থিতি। তবু ওঁকে এসব কথা বলতে হচ্ছে। না বলেন, উনি বিজেপির টিম থেকে বাদ পড়বেন। আশা করব স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে উনি এমন কিছু বলবেন না বা করবেন না, যা তাঁর পদের প্রতি মানুষের শ্রদ্ধা নষ্ট করে।”

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.