মোদী সরকার আসার পর থেকে দেশের সুরক্ষা ব্যাবস্থা অনেক কড়াকরি করা হয়েছে। নাহলে শ্রীলঙ্কার আতঙ্কবাদী ঘটনার পুনরাবৃত্তি করার পুরো পরিকল্পনা করেছিল আতঙ্কবাদীরা। শ্রীলঙ্কার ঘটনার পুনরাবৃত্তি দিল্লীতে করার পুরো প্ল্যান করে ফেলা হয়েছিল। দিল্লীর মেট্রো স্টেশনগুলোতে এমিনিতেই খুব ভিড় হয়। এর মধ্যে দিল্লীর চাঁদনী চৌক মেট্রো স্টেশনে(chandni chowk metro station) ভিড় প্রচন্ড হয়। কারণ সেখানে মেট্রো স্টেশন থাকার পাশাপাশি রেল স্টেশনও রয়েছে। মেট্রো স্টেশনের সামনে বড় বড় মার্কেটও রয়েছে যার জন্য ব্যাপক জনসমাগম লক্ষ করা যায়।

এখন দিল্লী থেকে একটা বড়ো খবর সামনে আসছে। দেশের মেইন স্ট্রিম মিডিয়া খবরটি চাপা দেওয়ার চেষ্টায় নেমে পড়েছে। খবর এই যে, CISF দিল্লীর চাঁদনী চক মেট্রো স্টেশনে একটা আতঙ্কবাদীকে ধরেছে। ধরা পড়া আতঙ্কবাদী দিল্লীর মেট্রো স্টেশনে CISF এর ইউনিফর্ম পরে ঘুরে বেড়াচ্ছিল। এই আতঙ্কবাদী নাদিম খান নামের একটা নেম প্লেট ইউনিফর্মে লাগিয়েছিল।

নাদিম খান চাঁদনি চক মেট্রো স্টেশনে ঘুরে বেড়াচ্ছিল। কোনো বড়ো আতঙ্কবাদী হামলার পরিকল্পনা হয়তো চলছিল। নাদিম খানের কাছে থেকে ২ টি আধার কার্ড, মোবাইল ফোন এবং অন্যান্য বেশকিছু নথি পাওয়া গেছে। CISF এর জওয়ান সেজে জনবহুল এলাকায় আতঙ্কবাদী হামলা করার বড়ো পরিকল্পনা ছিল নাদিম খানের।

দেশের সবথেকে বেশি মিডিয়া দিল্লীতে সক্রিয় থাকে। কিন্তু এই ঘটনা নিয়ে মিডিয়া নিশ্চুপ রয়েছে। আতঙ্কবাদ সম্পর্কে মানুষ যাতে বেশি সচেতন না হয় তার জন্যেই মিডিয়া এই খবর ধামা চাপা দেওয়ার চেষ্টা করছে। কারণ মিডিয়ার ধারণা এই ধরণের খবর কোনো এক বিশেষ রাজনৈতিক পার্টির ভোট বৃদ্ধি করতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.